২৯ বছর পর ‘ভুল’ বুঝতে পেরে জামায়াত নেতার পদত্যাগ

খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিবেদক
| আপডেট : ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৭:৫০ | প্রকাশিত : ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৭:৪৭

যোগদানের ২৯ বছর পর এক জামায়াত নেতা বুঝতে পারলেন যে, দলটি স্বাধীনতাবিরোধী। সে উপলব্ধিও এসেছে সদ্য পদত্যাগী জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুর রাজ্জাকের পদত্যাগত্রে উল্লেখিত কারণ থেকে।

তাই আব্দুর রাজ্জাকের একদিনের মাথায় দল থেকে পদত্যাগ করেছেন দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার ওই জামায়াত নেতা  বখতিয়ার উদ্দীন। পেশায় পল্ল¬ীচিকিৎসক বখতিয়ার ইসলামী ছাত্রশিবিরের নীলফামারী জেলা শাখার সাবেক সভাপতি ও ভেড়ভেড়ি ইউনিয়ন জামায়াতের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তিনিও আব্দুর রাজ্জাকের মতোই একাত্তরের ভূমিকার জন্য জামায়াতকে ক্ষমা চাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।  

খানসামা উপজেলা জামায়াতের আমিরের কাছে পাঠানো পদত্যাগপত্রে বখতিয়ার উদ্দিন উল্লেখ করেন, ‘১৯৯০ সালে আমি জামায়াতে যোগদান করি। ১৯৭৭ সালে জন্ম হওয়ায় স্বাধীনতার বিষয়ে অষ্পষ্টতা থেকে যায়, যা এই দলের নেতারা আমাকে বুঝিয়েছিলেন। কিন্তু গত ১৫ ফেব্রুয়ারি জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুর রাজ্জাকের পদত্যাগপত্র বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে দেখে এ বিষয়টি প্রতীয়মান হয় যে, জামায়াত ১৯৭১ সালে সরাসরি স্বাধীনতার বিরোধিতা করেছিল এবং এর জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চাইতে তিনি জামায়াতকে পরামর্শ দিয়েছিলেন। তার বক্তব্যে আমার এতদিনের ভুল ভেঙে যায় এবং বিশ্বাস হয়, জামায়াত স্বাধীনতাবিরোধী দল।

‘তাই আমি স্বাধীন বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে এ দলের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারি না। সুতরাং আমি জামায়াত ও এর সকল অঙ্গসংগঠনের সকল সদস্যপদ থেকে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করলাম এবং জামায়াতকে জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়ার পরামর্শ দিলাম।’

খানসামা উপজেলা আমির আব্দুল্লাহ আল কাফী বলেন, ‘পদত্যাগ করতে রোকন হতে হয়। আমি এ ব্যাপারে শুনেছি, তবে এখনো পদত্যাগপত্র পাইনি।’

(ঢাকাটাইমস/১৬ ফেব্রুয়ারি/প্রতিবেদক/এআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :