শাবানাকে দেশদ্রোহী বললেন কঙ্গনা

বিনোদন ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:১৪

বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের সমালোচনার তীরে ইতিমধ্যেই অনেকে বিদ্ধ হয়েছেন। এবার সেই তীর গিয়ে লাগলো সাবেক সুপারস্টার নায়িকা শাবানা আজমির বুকে। প্রবীণ এই অভিনেত্রীকে কঙ্গনা দেশদ্রোহী বলে উল্লেখ করেছেন। ছাড় দেননি শাবানার স্বামী গীতিকার জাভেদ আখতারকেও। তার গায়েও লাগিয়ে দিয়েছেন একই তকমা।

কিন্তু কেন? পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলা এবং ৪৯ ভারতীয় জওয়ানের মৃত্যু এর কারণ। এই ঘটনায় শাবানা আজমিকে তোপ দাগানোর কারণ হচ্ছে, তার বাবা কবি কাইফি আজমির জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে পাকিস্তানের করাচি আর্ট কাউন্সিলের পক্ষ থেকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল শাবানা ও তার স্বামী জাভেদ আখতারকে।

কিন্তু পুলওয়ামার ঘটনার পরে শাবানা জানিয়ে দেন, তিনি ওই অনুষ্ঠানে যাবেন না। টুইটে অভিনেত্রী লিখেন, এই পরিস্থিতিতে পাকিস্তানের সঙ্গে সাংস্কৃতিক আদানপ্রদান চলতে পারে না। কিন্তু কঙ্গনার দাবি, শাবানাদের পাকিস্তানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল এবং তারা প্রাথমিক ভাবে সেই আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছিলেন। এটাই তাদের দেশদ্রোহীতার প্রমাণ।  

কঙ্গনার অভিযোগ, শাবানার মতো শিল্পীরা শত্রুদের মনোবল বাড়িয়ে দেন। তারা নাকি ‘ভারত তেরে টুকড়ে হোঙ্গে’ বলে স্লোগান তোলেন। এখন পাক সফর বাতিল করে মুখরক্ষা করা যাবে না। তার মতে, বলিউড ইন্ডাস্ট্রি দেশদ্রোহীতে ভরে গেছে। পাকিস্তানকে ধ্বংস করাই এখন একমাত্র লক্ষ্য হওয়া উচিত। যারা শান্তির কথা বলবে, তাদের রাস্তায় ফেলে থাপড়ানো উচিত।’

কঙ্গনার এসব তীর্যক কথার উত্তর অবশ্য খুব শান্ত ভাবেই দিয়েছেন অভিনেত্রী শাবানা। এক সাক্ষাৎকারে প্রবীণ এই অভিনেত্রী বলেন, ‘গোটা দেশ যখন শোকার্ত মনে নিহত জওয়ানদের স্মরণ করছে, তখন আমাকে কে ব্যক্তিগতভাবে আক্রমণ করল, সেটা কি আদৌ মাথা ঘামানোর মতো বিষয়? সৃষ্টিকর্তা কঙ্গনাকে আশীর্বাদ করুন।’ সূত্র: আনন্দবাজার

ঢাকাটাইমস/১৭ ফেব্রুয়ারি/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :