পাকিস্তান সীমান্তে ভারতের মহড়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৩৫

সম্প্রতি ভারত নিয়ন্ত্রীত কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আধা সামরিক বাহিনীর গাড়ি বহরে বোমা হামলায় প্রায় অর্ধশত লোক নিহত হওয়ার পর ভারত-পাকিস্তান দ্বন্দ্ব নতুন রূপ নিয়েছে। এ হামলায় পাকিস্তানের সহযোগীতা রয়েছে বলে অভিযোগ করেছে ভারত। এ ঘটনার পর যুদ্ধ পরিস্থিতির মধ্যেই পাকিস্তান সীমান্তে মহড়া চালিয়েছে ভারতীয় বিমান বাহিনী।

পুলওয়ামায় ঘটনার পর প্রতিশোধস্পৃহায় ফুটছে গোটা ভারত। এমন অবস্থায় রাজস্থানের পোখরানে মহড়া চালায় বিমান বাহিনীর সদস্যরা। ১৪০টি যুদ্ধবিমান ও হেলিকপ্টার এই মহ়ড়ায় অংশ নিয়েছে।

ভারতীয় বায়ুসেনা বাহিনীর প্রধান বিএস ধানোয়া জানিয়েছেন, ভারতীয় বিমান বাহিনী ‘উপযুক্ত উত্তর’ দেওয়ার জন্য তৈরি হচ্ছে। তবে মহড়া চলাকালীন তিনি একবারও পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার কথা উল্লেখ করেননি। শুধু বলেছেন, দেশবাসীকে তিনি ভারতীয় বিমান বাহিনীর শক্তি আর দেশের সুরক্ষা নিয়ে তার দায়িত্ব সম্পর্কে জানিয়ে রাখতে চান। দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বিমানবাহিনী যে সবদিক থেকে প্রস্তুত তা সবার জানা দরকার।

এই মহড়ার নাম দেওয়া হয়েছে ‘আকাশ শক্তি-২০১৯’। মহড়ায় বায়ুসেনার অনুশীলন খতিয়ে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা। অব্যর্থ নিশানায় বিদ্ধ করতে এই অনুশীলন চালানো হচ্ছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।বিমান বাহিনী প্রধান জানিয়েছেন, যদি যুদ্ধ শুরু হয়, তাহলে চেষ্টা করা হবে যে পদ্ধতি অতীতে অবলম্বন করা হয়েছে, তা যেন ভবিষ্যতে না করা হয়। কারণ, সেই কৌশল শত্রুদের জানা। তাই এই মহড়ার আয়োজন।

জাগুয়ার, হারকিউলিস ও তেজসের মতো যুদ্ধবিমান এই মহড়ায় অংশ নিয়েছে। এছাড়া রয়েছে সুখোই থার্টি এস, মিগ টোয়েন্টি ওয়ান বিসন, মিগ টোয়েন্টি সেভেন, মিগ টোয়েন্টি নাইন, মিরাজ টু থাউজেন্ড, আই এল সেভেন্টি এইট ও এএন থার্টি টু এর মতো এয়ারক্র্যাফ্ট৷ লেজার প্রযুক্তির বোমা, রকেট লঞ্চারেরও মহড়া চালিয়েছে তারা। যাতে দিনে ও রাতে হেলিকপ্টার নির্দিষ্ট লক্ষে নিশানা করতে পারে, তার জন্যও হয়েছে অনুশীলন।

ঢাকা টাইমস/১৭ফেব্রুয়ারি/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :