ভুল করেছি: সানাইয়ের বোধোদয়

বিনোদন ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২৩:১৯ | প্রকাশিত : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২৩:১১

আর অপেশাদার ও অপ্রাসঙ্গিক ভিডিও প্রকাশ করবেন না বলে জানিয়ে জাতির কাছে ক্ষমা চেয়েছেন অভিনেত্রী সানাই মাহবুব সুপ্রভা। বলেছেন, ‘আমি ভুল করেছি।’

রবিবার এই অভিনেত্রীকে রাজধানীর মগবাজার থেকে আটক করে পুলিশ। পরে তাকে নেয়া হয় ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ দমন বিভাগে।

সেখানে প্রায় দুই ঘণ্টা এই অভিনেত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে ফেসবুক লাইভে জাতির কাছে ক্ষমা চাইলে মুচলেকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।  

পুলিশের হেফাজতে নিজের ফেসবুক আইডি দিয়ে লাইভে এসে নিজের কৃতকর্মের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন সানাই। বলেন, ‘আমি আজকে সবাইকে একটি বিশেষ ম্যাসেজ (বার্তা) দিতে চাই। এই দুপুর বেলা আমি একটা বিশেষ ম্যাসেজ দিতে এসেছি লাইভে। সবার উদ্দেশে আমি আসলে বলছি, আই হ্যাভ টু অ্যাপলজাইস ফর এ থিং। আমার সমালোচিত কন্টেন্টগুলো আমি কোনো বিশেষ উদ্দেশ্য বা কোনো ধরনের আর্থিক লাভের আশায় করি নাই। তদুপরি অদ্য সাইবার ক্রাইম ইউনিটে এসে এটা আমার বিশেষভাবে অনুধাবন হয়েছে যে এই কন্টেন্টগুলো দেখে কোনো শ্রেণির লোকজন বিশেষ করে শিশুরা যাদের বয়স ১৮ বছরের নিচে তারা ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

অতএব, এটা ডেফিনিটলি আমার ভুল ছিল। আমি এ দেশের একজন নাগরিক হিসেবে এ দেশের সুস্থ সংস্কৃতির বিকাশে এ দেশের আইন মেনে চলে একজন ভালো শিল্পী হতে চাই। ইতিপূর্বে আমার ব্যক্তিগত বা যৌথভাবে করা বিব্রতকর ছবি বা ভিডিওর জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখিত।

আমি ভবিষ্যতে এ ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকব এবং আমার নিয়ন্ত্রণে থাকা সব প্রোফাইল থেকে এ ধরনের কন্টেন্টগুলো মুছে ফেলব এবং অন্যান্য কন্টেন্টগুলোর বিষয়ে সাইবার ক্রাইম ইউনিউটের সহায়তা চাচ্ছি।’

ফেসবুক লাইভে সানাই আরো বলেন, ‘আমি সবাইকে আহ্বান জানাচ্ছি দেশের ইন্টারনেটকে আমরা নিরাপদ রাখব এবং সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ স্লোগানকে এগিয়ে নিয়ে যাব। ধন্যবাদ সবাইকে, আমার সাথে থাকার জন্য।’

এ ব্যাপারে এডিসি নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার স্যারের নেতৃত্বে নিরাপদ ইন্টারনেট ক্যাম্পেইনের অংশ হিসেবে সানাইকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আমাদের অফিসে এনেছিলাম। সানাই তার ভিডিওগুলোর জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চেয়েছেন এবং সেসব ভিডিও মুছে ফেলতে সম্মত হয়েছেন।'

এডিসি আরো বলেন, ‘তিনি (সানাই) মুচলেকা দিয়েছেন যে, কখনো আর এ ধরনের ভিডিও বানাবেন না বা ছড়াবেন না। সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ দমন বিভাগ তাঁর এ ধরনের কর্মকাণ্ডের ওপর নজর রাখবে। মুচলেকার বাইরে কিছু করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।’

গব বছর নিজের দেহবল্লরি আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে ব্রেস্ট ইমপ্ল্যান্টের মাধ্যমে তার স্তনের আকৃতি বড় করে আলোচনায় আসেন সানাই।

যদিও হলিউড বা বলিউডের অনেক বিখ্যাত নায়িকাই এমনটা করেছেন। তবে বাংলাদেশে তিনিই প্রথম।

সে সময় জানতে চাওয়া হলে সানাই বলেছিলেন, ‘নিজেকে অন্যরকম লুকে আকর্ষণীয় করতে থাইল্যান্ড থেকে ব্রেস্ট সার্জারি করিয়েছি। আধুনিকতা নয়, নিজের সৌন্দর্যরূপ বৃদ্ধি করতেই মূলত এটি করা। আর বিষয়টি আমি সব দিক বিবেচনা করেই করিয়েছি।’

এর পরই তিনি ফেসবুকে নানান অঙ্গি ভঙ্গিতে ছবি ও ভিডিও দিতে থাকেন। যা রীতিমতো ভাইরাল হয়। অনেকে এর সমালোচনাও করেন।

ঢাকাটাইমস/১৭ফেব্রুয়ারি/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :