ভাষার মাসে বাপ্পার ভাষার গান

প্রকাশ | ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:০৯

বিনোদন প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস

মায়ের ভাষায় কথা বলতে গিয়ে জীবন দেওয়া কথাটি অলীক হলেও সত্য কেবল বাঙালির বেলায়। পৃথিবীতে বাঙালিই একমাত্র জাতি যাদেরকে ভাষার জন্য রক্ত দিতে হয়েছে। এ জন্য বাংলার প্রতি বাঙালির দরদ ও মমত্ব অনেক বেশি। এ যেন মাতৃভাষার সঙ্গে আত্মার এক দৃঢ় বন্ধন।

রক্তের দামে কেনা এই বাংলা ভাষা ও বর্ণমালা নিয়ে এবার গান করছেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী বাপ্পা মজুমদার। গানটি লিখেছেন সাংবাদিক ও গীতিকার সায়ীদ আবদুল মালিক। ‘প্রাণের বর্ণমালা’ শিরোনামের এই গানটি ভিডিওসহ মুক্তি পাবে এবারের একুশে ফেব্রুয়ারিতে। গানটি পাওয়া যাবে গায়কের নিজের ইউটিউব চ্যানেলে।

এ প্রসঙ্গে বাপ্পা মজুমদার বলেন, ‘অসাধারন একটি গান হয়েছে। গানটি গাইতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি।

প্রথমবার একুশ নিয়ে গাওয়া গানের বিশেষত্ব সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘গানের কথাগুলো একেবারে অন্যরকম। ওভার অল কম্পোজিশন খুবই সহজ। কোনো জটিলতা নাই। একেবারে সহজ কথায় লেখা। কথাগুলো সহজেই বোঝা যায়। গানের সুর করার ক্ষেত্রেও অত্যন্ত সহজ সুর তোলার চেষ্টা করেছি। আশা করি, শ্রোতাদের ভালো লাগবে।’

বাপ্পা আরও বলেন, ‘আমি আগেও সায়ীদ আবদুল মালিকের লেখা একটি গানে কণ্ঠ দিয়েছি, কাজ করেছি। তবে গানটি এখনও প্রকাশ করা হয়নি। ওই গানটি আমাদের যান্ত্রিক এ শহরের দৈনন্দিন জীবন নিয়ে লেখা বাস্তবধর্মী একটি গান। ভাষা দিবসের পরেই গানটি শ্রোতাদের জন্য প্রকাশ করা হবে।’

গীতিকার সায়ীদ আবদুল মালিক বলেন, ‘মাতৃভাষার প্রতি গভীর মমত্ববোধ ও ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা থেকে ১৯৯৭ সালে গানটি রচনা করি। দীর্ঘদিন পরে হলেও গানটি প্রকাশিত হচ্ছে। বিষয়টি ভেবে খুবই ভালো লাগছে। বাপ্পা দা’র মতো একজন বড় মাপের শিল্পী ‘প্রাণের বর্ণমালা’ গানটি গাওয়াতে এটি শিল্পের পথে অনেক দূর এগুচ্ছে বলেই আমি মনে করি।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলা ভাষাতেই মাঝি গান গায়। এ ভাষার ‘ঘুমপাড়ানি গানে’ পরম মমতায় আজও শিশুদের ঘুম পাড়ায় বাংলার মায়েরা। মাতৃভাষা নিয়ে এমন একটি গান লিখতে পেরে আমি আনন্দিত ও গর্বিত।’

ঢাকাটাইমস/১৮ ফেব্রুয়ারি/আরকে/এএইচ