‘একুশের সব আয়োজনে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেবে র‌্যাব’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৬:৩১

একুশে ফেব্রুয়ারির অনুষ্ঠানমালা শান্তিপূর্ণভাবে পালন করতে আগের রাত থেকেই র‌্যাব সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেবে বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ। বলেছেন, ‘একুশের অনুষ্ঠান নিয়ে কোনো শঙ্কা নেই। যে সমস্ত ঝুঁকি রয়েছে, তা দূর করাই আমাদের কাজ।’   

মঙ্গলবার দুপুরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পরিদর্শন শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।   
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘কাশ্মীর ইস্যু দেখেন, সেটার সঙ্গে আমাদের কোনো মিল নেই। তাদের ইস্যু আর আমাদের ইস্যু এক নয়। আমাদের জঙ্গি গ্রেপ্তার রয়েছে। আমরা জঙ্গিদের দিক থেকে কখনও মুখ ফেরাই না।’  

বৃহস্পতিবার একুশে ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করবেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী। এরপর থেকে একুশের দিন সকাল পর্যন্ত প্রভাতফেরি ও শ্রদ্ধা নিবেদনে মানুষের ঢল নামবে শহীদ মিনারসহ পুরো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও আশেপাশে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একুশে মঞ্চ প্রস্তুত এবং র‌্যাবসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীগুলো ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে বলেও জানান র‌্যাব প্রধান। বলেন, ‘ভাষার মাসে আমরা ভাষা শহীদদের পবিত্র আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করছি। একুশের রাতে সারা বাংলাদেশ ভাষা শহীদদের সর্বোচ্চ সম্মান প্রদর্শন করবে। বাহিনীর পক্ষ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারসহ দেশের যেখানে যেখানে র‌্যাব রয়েছে, প্রতিটি জায়গায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে বলে বিস্তারিত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। যেন সবাই শান্তিপূর্ণভাবে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করতে পারেন।’

‘কেউ যেন শান্তিশৃঙ্খলার বিঘ্ন ঘটাতে না পারে, সেজন্য শহীদ মিনারে  স্ট্যান্ডিং পেট্রল থাকবে, মোবাইল পেট্রল থাকবে, অবজারভেশন ফোর্স থাকবে, সাদা পোশাকে প্রচুর সংখ্যক গোয়েন্দাও থাকবেন।’

‘আমরা শুধু শহীদ মিনার নয়, সমগ্র এলাকাসহ আশেপাশের এলাকায়ও নিরাপত্তা বলয় গড়ে তুলছি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েও রয়েছে একুশের মঞ্চ, আমাদের সেখানেও নিরাপত্তা ব্যবস্থা রয়েছে। একুশে ফেব্রুয়ারির নিরাপত্তা ব্যবস্থা তৈরি করে ফেলেছি, যা একুশের দুপুর পর্যন্ত বলবৎ রাখব।  এখন এই অঞ্চলে গোয়েন্দা নজরদারি করছি। আমরা আমাদের সামর্থ্যরে সর্বোচ্চ দিয়েই সকল আয়োজনকে নিরাপদ রাখব।’

কেউ যেন শান্তিশৃঙ্খলার বিঘ্ন ঘটাতে না পারে, সেজন্য সবাইকে সজাগ থাকারও  অনুরোধ জানান তিনি।

(ঢাকাটাইমস/১৯ ফেব্রুয়ারি/এএ/এআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :