কঠিন কন্ডিশনে সেঞ্চুরি করে সাব্বিরের জবাব

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:৫৪

 

তার মতো সাহসী ব্যাটসম্যানকে দীর্ঘ দিন দলের বাইরে রেখে ঠিক করেনি বিসিবি, সেটা ব্যাট হাতেই বুঝিয়ে দিলেন সাব্বির রহমান। নিউাজল্যান্ড সফরে যখন দলের চরম ভারাডুবি তখন ব্যাট হাতে আলো ছড়ালেন তিনিই।

প্রথম ম্যাচে করেছিলেন ১৩, দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ৪৩। আজ তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে দারুণ সেঞ্চুরি। ১১০ বলে ১২ চার ও দ্ইু ছক্কায় ১০২ রান করে আউট হন শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে। ব্যাট হাতেই জবাব দিলেন সাব্বির রহমান।

অত্যন্ত কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছিলেন। শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ ছিলেন ছয় মাস। ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ে ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে খেলা হয়নি।

নিউজিল্যান্ড সফরেও তার দলভূক্তি নিয়ে নানা কথা ওঠে। নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার নিয়ে হয় অনেক নাটক। অবশেষে অনেক ঘটনার জন্ম দিয়ে জাতীয় দলে ফেরাটাকে স্মরণীয় করে রাখলেন সাব্বির রহমান রুম্মন।

ছয় মাসের একটি নিষেধাজ্ঞা শেষ হতে না হতে ছয় মাসের আরেক নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছিলেন। এই শাস্তি পুরোপুরি ভোগ করলে খেলা হতো না নিউজিল্যান্ডে বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে। শাস্তি কমানোয় সুযোগ পান ওয়ানডে সিরিজের দলে।

২০১৪ সালে ওয়ানডে অভিষেক হওয়া সাব্বিরের প্রথম সেঞ্চুরি করতে লেগেছে ৫১ ইনিংস। বাংলাদেশের চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ানডেতে পঞ্চাশ বা তার বেশি ইনিংস খেলার পর তিনি পেলেন তিন অঙ্কের দেখা।প্রথম সেঞ্চুরির আগে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৯৭ ইনিংস খেলেন মাহমুদউল্লাহ। ২০০৭ সালে ওয়ানডে অভিষেক হওয়ার আট বছর পর ২০১৫ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১০৩ রান করেন তিনি।

বাংলাদেশের আরেক ব্যাটিং ভরসা মুশফিকুর রহিম নিজের প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন ৮৬তম ইনিংস। ৫৬তম ইনিংসে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন অলক কাপালী।

দশম ওভারে বাংলাদেশ ৪০ রানে ৪ উইকেট হারানোর পর ক্রিজে আসা সাব্বির ফিরতে পারতেন শূন্য রানে। টিম সাউদির বলে তার পুলে ডিপ ফাইন লেগে ক্যাচ ধরতে গিয়ে তালগোল পাকিয়ে ছক্কা বানিয়ে দেন লকি ফার্গুসন। জীবন পাওয়ার পর আর পেছনে তাকাতে হয়নি, চোখধাঁধানো সব শটে এগিয়ে নেন দলকে।

ষষ্ঠ উইকেটে মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিনের সঙ্গে ১০১ রানের জুটিতে দলকে টেনে তুলেন খাদের কিনারা থেকে। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার দ্রুত বিদায়ের পর মেহেদী হাসান মিরাজকে নিয়ে গড়ে তুলেন ৬৭ আরেকটি ভালো জুটি।

সাত চার ও এক ছক্কায় ৫৯ বলে পঞ্চাশ পঞ্চাশ স্পর্শ করেন সাব্বির। দাপুটে ব্যাটিংয়ে পেরিয়ে যান আগের সেরা ৬৫। তিন অঙ্কে পৌঁছান ১০৫ বলে। তার ব্যাটেই আড়াইশর কাছাকাছি যায় বাংলাদেশের সংগ্রহ।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এত দিনেও কোনো সেঞ্চুরি না থাকায় সমালোচনার মুখে ছিলেন সাব্বির। তিন অঙ্ক ছোঁয়ার পর উদযাপন দিয়ে বুঝিয়ে দেন জবাবটা দিলেন ব্যাট দিয়ে। তবে তার লড়াকু ব্যাটিংয়ের পরও ৮৮ রানে জিতে বাংলাদেশকে হোয়াইটওয়াশ করেছে নিউ জিল্যান্ড।

(ঢাকাটাইমস/২০ফ্রেব্রুয়ারি/ডিএইচ)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :