উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

না.গঞ্জে তিন এমপির বিরোধীরা পেলেন নৌকা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০২ মার্চ ২০১৯, ১৯:০৮ | প্রকাশিত : ০২ মার্চ ২০১৯, ১৮:৩৯

চতুর্থ ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জে যে তিনটি উপজেলায় নির্বাচন হবে তাতে আওয়ামী লীগের নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন স্থানীয় তিন এমপির কট্টর বিরোধীরা। তাদের পরস্পরের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে সাপে নেউলে সম্পর্ক।

শুক্রবার (১ মার্চ) রাতে ওই তিন উপজেলা পরিষদে নৌকা প্রতীকে প্রার্থী ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনটি উপজেলায় নারায়ণগঞ্জের তিনটি সংসদীয় আসন রয়েছে। ওই তিন আসনের বর্তমান তিন এমপির কট্টর বিরোধীরা পেয়েছেন নৌকা প্রতীক। গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ওই তিন এমপিকে ঠেকাতে প্রকাশ্যে মাঠে ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন পাওয়া এই নেতারা।

নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনে টানা তিনবারের এমপি পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গাজী গোলাম দস্তগীর (বীর প্রতীক)। রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদে এবার নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পেয়েছেন তার বিরোধী হিসেবে পরিচিত বর্তমান চেয়ারম্যান ও রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান ভূঁইয়া। টানা দুবার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন শাহজাহান ভূঁইয়া।

এমপি গাজী ও উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহানের লোকজনের মধ্যে একাধিকবার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। একাধিকবার তারা আবার মিলিতও হন। কিন্তু তাদের বিরোধ কখনো মেটেনি। তাদের অনুসারীদের সংঘর্ষে দুটি হত্যাকা-ের ঘটনাও ঘটে। গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মুড়াপাড়া ইউনিয়নে পাল্টাপাল্টি চেয়ারম্যান প্রার্থী দেন গাজী ও শাহজাহান ভূঁইয়া। এ নিয়ে সংঘর্ষে জাহাঙ্গীর নামে এক যুবলীগকর্মী খুন হন। ওই ঘটনায় শাহজাহান ভূঁইয়ার লোকজন আসামি হন। একইভাবে জুয়া খেলা নিয়ে যুবলীগের এক কর্মী নিহতের ঘটনায়ও শাহজাহান ভূ্্ঁইয়া আসামি হন।

গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রায় ঘোষণার দিন গাজী ও শাহজাহান গ্রুপের শোডাউনে দুই পক্ষে সংঘর্ষ হয়। এতে যুবলীগের এক কর্মী নিহত হলে ওই মামলায় মন্ত্রী গাজীর ঘনিষ্ঠ তোফায়েল আলমাসসহ তার পক্ষের লোকজন আসামি হন।

গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাজী দস্তগীরের মনোনয়ন ঠেকাতে ২৩ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন। মন্ত্রী গাজীও বেশ কজনকে দিয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করান। এই আসন থেকে মোট ৩৬ জন নেতা মনোনয়ন সংগ্রহ করেন। শেষ পর্যন্ত গাজীকেই মনোনীত করে আওয়ামী লীগ।

জেলার আড়াইহাজার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মুজাহিদুর রহমান হেলো সরকার। তিনি এর আগে ভাইস চেয়ারম্যান পদে দায়িত্ব পালন করেন। গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে তিনি বর্তমান এমপি নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে গিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল পারভেজের জন্য মনোনয়ন চেয়ে কাজ করেন। নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে সরাসরি বক্তব্যও দেন হেলো সরকার। ইকবাল পারভেজের পক্ষে নির্বাচনের আগে গণসংযোগ করতে গিয়ে এমপি বাবুর লোকজনের হামলার শিকার হন তিনি।

এবারের নির্বাচনে নজরুল ইসলাম বাবু চেয়েছিলেন বর্তমান পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহজাহাল মিয়াকে। কিন্তু জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল হাই ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদ বাদল কেন্দ্রে সুপারিশ করেন হেলো সরকারের নাম।

নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁও) আসনের উপজেলা সোনারগাঁওয়ে চেয়ারম্যান পদে   মনোনয়ন পেয়েছেন আওয়ামী লীগের সাবেক এমপি আব্দুল্লাহ আল কায়সার হাসনাতের আপন চাচা সাবেক চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন।

গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কায়সার হাসনাত স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে লড়াইয়ে নেমেছিলেন। আওয়ামী লীগ এ আসনটি মহাজোট থেকে জাতীয় পার্টির লিয়াকত হোসেন খোকাকে প্রার্থী করে। নির্বাচনের এক দিন আগে পুলিশ হাসনাতের বাড়িতে ‘অভিযান চালালে’ কায়সার হাসনাত নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান।

কায়সার হাসনাতের বেশ কটি নির্বাচনী সভায় এমপি খোকার বিরুদ্ধে কঠোর সমালোচনা করে বক্তব্য দেন মোশারফ হোসেন। এর আগে গত ২০১৪ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসনে মনোনয়ন পান মোশারফ হোসেন। ওই নির্বাচনে সোনারগাঁও আসনটি আওয়ামী লীগ জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দিলে এখানে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় এমপি নির্বাচিত হন লিয়াকত হোসেন খোকা। ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনেও কায়সার হাসনাত নির্বাচন থেকে সরে গেলে এখানে এমপি নির্বাচিত হন খোকা।

ওই নির্বাচনে খোকার পক্ষে কাজ করেছিলেন সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম। কালাম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন চেয়েছিলেন, কিন্তু পাননি।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চতুর্থ ধাপে ১২২টি উপজেলায় ভোট নেওয়া হবে ৩১ মার্চ। মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ৪ মার্চ, বাছাই ৬ মার্চ। আর প্রার্থিতা  প্রত্যাহারের শেষ সময় ১৩ মার্চ।

ইসি ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, প্রথম ধাপে ৮৭ উপজেলায় ১০ মার্চ, দ্বিতীয় ধাপে ১২৯ উপজেলায় ১৮ মার্চ ও তৃতীয় ধাপে ১২৭ উপজেলায় ২৪ মার্চ ভোট নেওয়া হবে।

(ঢাকাটাইমস/২মার্চ/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিশেষ প্রতিবেদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :