চকচকে প্যাকেটে চা পাতার বদলে কাঠের গুঁড়া!

আমিনুল হক সাদী, কিশোরগঞ্জ
 | প্রকাশিত : ০৯ মার্চ ২০১৯, ১৬:৫৩

চা পাতার সঙ্গে কাঠের গুঁড়া মিশিয়ে অভিনব প্রতারণা করছে ‘জান্নাত’ নামের একটি চা পাতা বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠান। এসব চা পাতা কিনে প্রতারণার শিকার হয়েছেন কিশোরগঞ্জের মুদি ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন।

জানা গেছে, ঢাকা থেকে পরিচালিত ‘জান্নাত’ নামের একটি চা পাতা সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের অধীনে বিক্রয় কর্মীরা জেলার বিভিন্ন স্থানে চা সরবরাহ করে আসছেন। জেলা সদরের মহিনন্দ ইউনিয়নের জালালপুর বাজারের মুদি ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন অভিযোগ করেন, গত ১৫ দিন আগে তিনি ওই প্রতিষ্ঠানের একজন ফেরিওয়ালার কাছ থেকে পাঁচ কেজি চা ১৬শ টাকা দিকে কিনেন। গত রাতে আরও পাঁচ কেজি চা পাইকারি দরে কিনে স্থানীয়ভাবে তা খুচরা বিক্রি করে।

সকালে প্রতিবেশী চায়ের দোকানদার হারিছ মিয়া দোকানে এসে জানালেন, জান্নাত স্পেশাল নামের চায়ের প্যাকেটের ভেতরে কাটের গুঁড়া ভর্তি পাওয়া গেছে। পরে আরেকটি প্যাকেটের মোড়ক খুলে দেখা যায় সেখানেও কাঠের গুঁড়া। নাসির বলেন, ‘বিএসটিআই এর মনোগ্রামও রয়েছে প্যাকেটগুলোতে। ফলে আমরা ব্যবসায়ীরা বিশ্বাস করে এসব প্যাকেট কিনেছিলাম। কিন্তু প্যাকেটের ভেতরে এমন কাটের গুঁড়া ভরে চা পাতা বলে চালিয়ে দেওয়া নেহায়েত অন্যায় ও প্রতারণা।’ তিনি এ প্রতিষ্ঠান ও সংশ্লিষ্ট ডিলারদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান।

জানা গেছে, স্থানীয় কিছু অসাধু চোরাকারবারি ভারত থেকে ভেজাল রং মেশানো চা পাতা এনে উন্নতমানের প্যাকেটে কিশোরগঞ্জসহ আশপাশের এলাকায় বিক্রি করে যাচ্ছে। উন্নতমানের প্যাকেটে ভরা ভেজাল চা পাতা কিনে ঠকছেন ক্রেতা সাধারণ।

কিশোরগঞ্জ ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ ইবরাহীম ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘চা পাতার বদলে কাঠের গুঁড়া বিক্রি নেহায়েত অন্যায় ও প্রতারণা। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এ বিষয়ে জান্নাত চা পাতার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও ফোন রিসিভ না করায় কারও সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

(ঢাকাটাইমস/০৯মার্চ/জেবি)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :