ফোনে অ্যানড্রয়েডের বিকল্প আসছে

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ মার্চ ২০১৯, ১১:০২

স্মার্টফোনের জনপ্রিয় অপারেটিং সিস্টেম অ্যানড্রয়েড। দুনিয়ার বেশিরভাগ ফোনে ব্যবহৃত হচ্ছে অ্যানড্রয়েড। এর উদ্ভাবক গুগল। এবার বুঝি অ্যানড্রয়েডের দিন ফুরিয়ে আসছে। অ্যানড্রয়েডের বিকল্প অপারেটিং সিস্টেম অচিরেই বাজারে আসছে।  

অ্যানড্রয়েডের বিকল্প অপারেটিং সিস্টেম আসবে হুয়াওয়ের হাত ধরে। প্রতিষ্ঠানটি বাধ্য হয়েই এই অপারেটিং সিস্টেম তৈরিতে হাত দিচ্ছে। এর পেছনে অবশ্য অন্য কারণ রয়েছে। 

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চাপের মুখে আছে হুয়াওয়ে। সম্প্রতি কানাডায় কোম্পানির প্রধান গ্রেপ্তার হয়েছিলেন। এর পরেই বিতর্ক দানা বাঁধতে শুরু করে। ইতিমধ্যেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশে সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ হয়েছে হুওয়াওয়েই প্রোডাক্ট। কিন্তু এখানেই বিতর্ক থাকছে না।

হুয়াওয়ের স্মার্টফোনে ব্যবহার হয় গুগলের তৈরি অ্যানড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম। অন্যদিকে কোম্পানির কম্পিউটার ও ল্যাপটপে মাইক্রোসফটের তৈরি উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার হয়। গুগল ও মাইক্রোসফট এই দুটিই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি। অনেকেই মনে করছেন হুয়াওয়েকে সার্ভিস দেওয়া বন্ধ করার নির্দেশ গুগল ও মাইক্রোসফট দপ্তরে পৌঁছাতে পারে পেন্টাগন থেকে। মার্কিন সরকারের নির্দের অমান্য করতে পারবে না এই দুটি কোম্পানি। সেই ক্ষেত্রে হুয়াওয়ে স্মার্টফোন ও ল্যাপটপ ব্যবসা মুখ থুবড়ে পরতে পারে।

বিকল্প পরিকল্পনা তৈরি করেছে রেখেছে হুয়াওয়ে। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে কোম্পানির এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা জানিয়েছেন ইতিমধ্যেই নিজেদের মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম বানিয়ে ফেলেছে হুয়াওয়ে। ২০১২ সাল থেকে এই অপারেটিং সিস্টেম বানানোর কাজ করছিল হুয়াওয়ে। যদি হঠাৎ অ্যানড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম বন্ধ করতে বাধ্য হয় কোম্পানি সেই ক্ষেত্রে নিজেদের অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার হবে স্মার্টফোনে। 

হুয়াওয়ের এক্সিকিউটিভ রিচার্ড ইউ জানিয়েছেন যে কোনো ধরনের পরিস্থিতির জন্য তৈরি প্রতিষ্ঠানটি। এই মুহূর্তে হুয়াওয়ের ও সাব ব্র্যান্ড অনর এর সব ফোনে অ্যানড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের উপরে কোম্পানির নিজস্ব ইএমইউআই ব্যবহৃত হচ্ছে।

গত বছর মে মাসে প্রথম এই মোবাইল অপারেটিং সিস্টেমের খবর সামনে এসেছিল। গত দুই বছর খুব কম স্মার্টফোন কোম্পানির বিক্রি বেড়েছে। তার মধ্যেই অন্যতম হুয়াওয়ে। তাই হুয়াওয়ে ফোনে কোম্পানির নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার হলে নিঃসন্দেহে বেকায়দায় পরতে পারে গুগল।

(ঢাকাটাইমস/১৯মার্চ/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :