ময়মনসিংহে যুদ্ধাপরাধ মামলার চার আসামি গ্রেপ্তার

ব্যুরো প্রধান, ময়মনসিংহ
| আপডেট : ২০ মার্চ ২০১৯, ১০:২২ | প্রকাশিত : ২০ মার্চ ২০১৯, ১০:১৯

ময়মনসিংহে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে গণহত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে  চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার বিকালে  ফুলপুর থানা পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার চারজন হলেন, গিয়াস উদ্দিন খান, উমেদ আলী, আব্দুল মালেক  ও আবু সিদ্দিক। তারা উপজেলার মইশাকান্দা, পূর্ব বাখাই গ্রামের বাসিন্দা।

ফুলপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুল আলম খান গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ফুলপুরের সুতারকান্দি, বাখাই, ফতেহপুর ও মইশাকান্দাসহ বিভিন্ন গণহত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে এই চারজনের বিরুদ্ধে।

স্থানীয়রা জানায়, ময়মনসিংহের ফুলপুর-হালুয়াঘাট দুই উপজেলায় একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন ১১ বাড়িতে ডাকাতি, অগ্নিসংযোগ, অপহরণ, ধর্ষণ এবং চারজনকে হত্যার অভিযোগে ফুলপুরের মৈশাউন্দার তথাকথিত পিস কমিটির সদস্য গিয়াস উদ্দিন খানকে মূল আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন ফুলপুরের শর্চাপুর, বড়ইকান্দী এবং বালিয়া মাদ্রাসায় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ক্যাম্প স্থাপন করে তাদের নিযুক্ত রাজাকার আলবদর এবং তথাকথিত পিস কমিটির সদস্যদের যোগসাজসে ব্যাপক অপরাধ কর্মকাণ্ড চালানো হয়।

এসময় ফুলপুর এবং পার্শ্ববর্তী হালুয়াঘাট উপজেলার ১১ হিন্দু বাড়িতে ডাকাতি, অপহরণ, খুন, ধর্ষণসহ মানবতা বিরোধী অপরাধ সংগঠিত হয় রাজাকারদের ইন্ধনে।এ মামলার আসামি গিয়াস উদ্দিন খান অপর মুসলিম লীগ নেতা মৃত দৌলত আলী, বছির মেকার এবং সৈয়দ আলী চেয়ারম্যানদের যোগসাজসে এ মানবতা বিরোধী অপরাধ কর্মকাণ্ড চালিয়েছেন বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

ময়মনসিংহের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের ৬নং আমলী আদালতে ২০১৬ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি মামলা দায়ের করে একই গ্রামের বাসিন্দা আঃ জলিল। পরদিন অর্থ্যাৎ ১৭ফেব্রুয়ারি উক্ত মামলার নথি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালে পাঠানো হয়।

দীর্ঘ ৪ বছরে আসামির বিরুদ্ধে প্রকাশ্য ও গোপনে সরেজমিন তদন্তে ঘটনার সত্যতা পায় ট্রাইবুনাল নিযুক্ত তদন্ত কমিটি।এ সময়ে কমপক্ষে ৫বার বড়ইকান্দী বধ্যভূমিসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রত্যক্ষদর্শীদের স্বাক্ষ্য গ্রহণ করে ট্রাইবুনাল।

ঢাকাটাইমস/২০মার্চ/ওআর
 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

আদালত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :