চাঁপাইনবাবগঞ্জে শামসুদ্দিন টগর হত্যা মামলা

একজনের মৃত্যুদণ্ড, চারজনের যাবজ্জীবন

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিবেদক
 | প্রকাশিত : ২০ মার্চ ২০১৯, ১৮:০৭

চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে আলোচিত শামসুদ্দিন টগর হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড, চারজনের যাবজ্জীবন ও তিনজনের দুই বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। বুধবার দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক শওকত আলী আসামিদের উপস্থিতিতে এই রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি গোমস্তাপুর উপজেলার পূর্ব জগত গ্রামের আবুল কালামের ছেলে রবিউল ওরফে রবু। যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলো কাদের, সামশুল, সাম মোহাম্মদ ও আপেল। এছাড়া এনামুল, আইনাল ও শরিফ নামে তিনজনকে দুই বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে ২০১৩ সালের ২২ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় নিহত শামসুদ্দিন টগর পার্শ্ববর্তী এনায়েতপুর বাজার থেকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে রবিউল ও তার ভাই কাদেরসহ ১০-১৫ জনের একটি দল তাকে দেশীয় অস্ত্র, লাঠি ও বল্লম দিয়ে মাথায় ও শরীরে এলোপাথাড়ি আঘাত করে। এতে গুরুতর আহত হন শামসুদ্দিন। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরের দিন ভোর ছয়টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নিহত শামসুদ্দিনের বড় ভাই জমসেদ আলী ওইদিনই গোমস্তাপুর থানায় ২২ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন। পরে ওই বছরের ৪ এপ্রিল মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই নূর মোহাম্মদ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

সাক্ষ্য প্রমাণাদি শেষে বুধবার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক রবিউলকে মৃত্যুদণ্ড অনাদায়ে এক লাখ টাকা জরিমানা ও  চারজনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড এবং প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছর সশ্রম কারাদণ্ড এবং তিনজনকে দুই বছরের কারাদণ্ড, অনাদায়ে  পাঁচ হাজার টাকা  করে জরিমানা করেন। বাকীদের বেকুসুর খালাস প্রদান করেন।

সরকারি পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্তি পাবলিক প্রসিকিউটর আঞ্জুমান আরা এবং আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন আব্দুল হামিদ, গোলাম কবির ও ইসমাঈল হোসেন।  

ঢাকাটাইমস/২০মার্চ/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত