বিয়ের আগে প্রেম, পাঁচ যুগলকে প্রকাশ্যে বেত্রাঘাত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ মার্চ ২০১৯, ১২:২৮

বিয়ের আগে প্রেম করায় প্রেমিক-প্রেমিকাকে বেত্রাঘাত করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ- বিয়ে না করেই প্রেমে মজেছিলেন তারা। এছাড়া একে অপরকে প্রকাশ্যে হাত ধরেছিলেন। ইন্দোনেশিয়ার আচেহ প্রদেশে এ ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার ইন্দোনেশিয়ার আচেহ প্রদেশে প্রকাশ্যে পাঁচ প্রেমিক যুগলকে বেত্রাঘাত করা হয়। খবর এনডিটিভির।

রক্ষণশীল ইন্দোনেশিয়ায় বিয়ের আগে প্রকাশ্যে প্রেম করা অপরাধ। দেশটিতে জুয়া, মদ খাওয়া এবং সমকামিতাও গুরুতর অপরাধ। এসব অপরাধের সাধারণ ও প্রাথমিক শাস্তি বেত্রাঘাত। ইন্দোনেশিয়া বিশ্বের বৃহত্তম মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ। দেশটির একমাত্র আচেহ প্রদেশেই ইসলামী আইন ব্যবস্থা কার্যকর রয়েছে।

বেত্রাঘাত করা এসব প্রেমিক-প্রেমিকারা ধরা পড়ার পর বেশ কয়েক মাস জেল খেটেছেন। জেল শেষ হওয়ার পর তাদের বেত্রাঘাত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দোষী সাব্যস্ত হওয়া এই পাঁচ যুগলকে প্রাদেশিক রাজধানী বান্ডা আচেহর মসজিদের বাইরে চার থেকে শুরু করে ২২ বার বেত্রাঘাত করা হয়। ধর্মীয় পুলিশরা তাদের একে অপরের হাত ধরতে দেখে বা প্রকাশ্যে প্রেম করতে দেখে, কিছু ক্ষেত্রে প্রকাশ্যে যৌন আচরণ করতে দেখার পর আটক করে।

কয়েকশ' দর্শকের সামনে মুখোশধারী শরিয়া অফিসার ওই দম্পতিদের বেত্রাঘাত করেন। ধর্মীয় অফিসার সাফরিআদি বলেন, “আমরা আশা করি ভবিষ্যতে এ রকম আর কোনো ঘটনা হবে না- এটি লজ্জাজনক।”

ডিসেম্বরে, আচেহর দুই নাবালিকা মেয়ের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করার অপরাধে দুইজন পুরুষকে আচেহতে ১০০ ঘা বেত্রাঘাত করা হয়। মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলি প্রকাশ্যে বেত্রাঘাতের ঘটনাকে নৃশংস হিসেবে উল্লেখ করেছে এবং এই প্রথা রদের আহ্বান করেছে। তবে প্রদেশটির বেশিরভাগ মানুষ ইসলামী এই আইন প্রয়োগে সন্তুষ্ট।

ঢাকা টাইমস/২১মার্চ/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :