যে গানগুলো ‘বাঁচিয়ে রাখবে’ শাহনাজ রহমতুল্লাহকে

বিনোদন প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৪ মার্চ ২০১৯, ০৯:৪২

মানুষ মরে যায়, রেখে যায় কর্ম। সেই কর্মের জন্যই মানুষ আজীবন বেঁচে থাকে অন্য মানুষদের অন্তরে। তেমনই বেঁচে থাকবেন সদ্য প্রয়াত কণ্ঠশিল্পী শাজনাজ রহমতুল্লাহ। শনিবার রাত ১১টার দিকে শ্বাসকষ্টজনিত কারণে তার মৃত্যু হয়েছে। আজ জোহরের নামাজ পরে জানাজা শেষে বনানীতে সম্মিলিত সামরিক বাহিনীর কবরস্থানে তিনি সমাহিত হবেন।

কিংবদন্তি এই শিল্পীর দৈহিক মৃত্যু ঘটলেও বাংলাদেশের সংগীতপ্রেমীদের অন্তরে তিনি বেঁচে থাকবেন যুগের পর যুগ। মৃত্যুর আগে যে কালজয়ী গানগুলো তিনি উপহার দিয়ে গেছেন, সেগুলোই তাকে বাঁচিয়ে রাখবে যতদিন বাংলাদেশ থাকবে।

কেননা, শাহনাজ রহমতুল্লাহ মূলত বেশি জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন কিছু দেশত্ববোধক গান গেয়ে। ২৬ মার্চ ও ১৬ ডিসেম্বরের মতো জাতীয় দিবসগুলো আসলেই যে গানগুলো এখনও বাজে শহর, নগর, বন্দর ও গ্রামের প্রতিটি অলিগলিতে। বাজবে আজীবন।

সেই কালজয়ী গানগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘আবার তোরা মানুষ হ’ ছবিতে খান আতাউর রহমানের কথা ও সুরে ‘এক নদী রক্ত পেরিয়ে’, গাজী মাজহারুল আনোয়ারের কথা ও আনোয়ার পারভেজের সুরে ‘জয় বাংলা বাংলার জয়’, ‘একবার যেতে দে না আমার ছোট্ট সোনার গাঁয়’, ‘একতারা তুই দেশের কথা বলরে এবার বল’ ও প্রথম বাংলাদেশ আমার শেষ বাংলাদেশ’ ইত্যাদি।

দীর্ঘ পাঁচ দশক গান গেয়েছেন শাহনাজ রহমতুল্লাহ। বিবিসির জরিপে সর্বকালের সেরা ২০টি বাংলা গানের তালিকায় তার গাওয়া গানই চারটি। উল্লেখ করার মতো বিষয় হচ্ছে, সেই চারটি গানটি দেশত্ববোধক।  

সংগীতে বিশেষ অবদান রাখায় ১৯৯২ সালে বাংলাদেশ সরকার শাহনাজ রহমতুল্লাহকে দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মাননা একুশে পদকে ভূষিত করে। তার ঝুলিতে আছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও। সবকিছু ফেলে শনিবার না ফেরার দেশে চলে গেলেন খ্যাতিমান এই শিল্পী।

ঢাকাটাইমস/২৪মার্চ/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :