নিজেকে ‘নির্দোষ’ হিসেবে তুলে ধরছেন ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ২৫ মার্চ ২০১৯, ১৫:২১ | প্রকাশিত : ২৫ মার্চ ২০১৯, ১৫:১৬

রাশিয়ার সঙ্গে অবৈধ যোগাযোগ সংক্রান্ত তদন্তে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি৷ রবার্ট মুলারের প্রতিবেদনে এমন ফলাফল উঠে আসায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন ট্রাম্প৷ তবে এক্ষেত্রে এখনই হাল ছাড়ছেন না বিরোধীরা।

একাধিক তদন্তের মুখে জেরবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বার বার নিজেকে নির্দোষ হিসেবে তুলে ধরার চেষ্টা চালিয়ে আসছেন৷ বিশেষ করে ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার সঙ্গে অবৈধ যোগাযোগ এবং সে বিষয়ে তদন্তের পথে প্রেসিডেন্ট হিসেবে বাধা সৃষ্টি করার অভিযোগে তাকে বিদ্ধ করা হয়েছে৷ সেবিষয়ে প্রায় ২২ মাস ধরে তদন্ত চালিয়ে আসছিলেন স্পেশাল কাউন্সেল রবার্ট মুলার৷ গত শুক্রবার তিনি চূড়ান্ত রিপোর্ট পেশ করেন৷

সেই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আনা না হলেও মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার তার চার পৃষ্ঠার প্রাথমিক বয়ানে জানিয়েছেন, যে ট্রাম্প টিমের সঙ্গে রাশিয়ার অবৈধ যোগাযোগের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি৷ তবে ট্রাম্প সেই তদন্তে বাধা দিয়েছিলেন কিনা, তা নিয়ে অস্পষ্টতা রয়েছে৷

রাশিয়া অবশ্যই ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপের চেষ্টা চালিয়েছিল বলে তদন্তে উঠে এসেছে৷ মুলার জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট কোনো অপরাধ করেছেন– এমন অভিযোগের পক্ষে কোনো প্রমাণ পাওয়া না গেলেও তাকে সম্পূর্ণ নির্দোষ হিসেবে প্রতিপন্ন করা যাচ্ছে না৷

তদন্তের এমন ফলাফল সম্পর্কে জেনে উচ্ছ্বসিত ট্রাম্প ও তার সমর্থকরা৷ নিজের রাজনৈতিক জয় তুলে ধরে ট্রাম্প যাবতীয় অভিযোগ থেকে ‘সসম্মানে’ মুক্তির দাবি করেন৷

২০২০ সালে দ্বিতীয় কার্যকালের জন্য প্রচারের ক্ষেত্রে তদন্তের ফলাফলকে হাতিয়ার করতে তৎপর হয়ে উঠছে ট্রাম্প শিবির৷ রবিবার ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, তাকে ফাঁসাতে ‘বেআইনি’ প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে৷ দেশকে এমন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যে যেতে হয়েছে, তা অত্যন্ত লজ্জার বিষয় বলে মনে করেন তিনি৷ 

বিরোধী ডেমোক্র্যাট দল মুলারের তদন্তের ফলাফল সম্পর্কে অসন্তুষ্ট হয়েছে৷ সেইসঙ্গে তারা ট্রাম্প-এর ব্যবসা সংক্রান্ত ও ব্যক্তিগত নানা বিষয় নিয়ে কংগ্রেসের তদন্ত চালিয়ে যাবার অঙ্গীকার করেছে৷ বিরোধীরা সম্পূর্ণ রিপোর্ট প্রকাশের দাবি জানিয়েছে৷ খবর ডয়চে ভেলের। 

সংসদের নিম্ন কক্ষের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি ও উচ্চ কক্ষে বিরোধী দলের নেতা চাক শুমার মুলারের সম্পূর্ণ রিপোর্ট দেখতে চেয়েছেন৷ তারা মনে করিয়ে দেন যে, তদন্তের ক্ষেত্রে ট্রাম্প বাধা দিয়েছিলেন কিনা, মুলার সে বিষয়ে তাকে কোনো ছাড়পত্র দেননি৷ তাই অবিলম্বে গোটা রিপোর্ট প্রকাশ্যে আনা উচিত৷ অর্থাৎ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাময়িক স্বস্তি পেলেও বাকি তদন্তগুলির হাত থেকে রেহাই পাচ্ছেন না৷ অবৈধ ব্যবসায়িক লেনদেন থেকে শুরু করে নারীঘটিত কেলেঙ্কারি আড়াল করতে অর্থ ব্যয়ের মতো নানা অভিযোগের ভিত্তিতে তার বিরুদ্ধে একাধিক আইনি প্রক্রিয়া চলছে৷

ঢাকা টাইমস/২৫মার্চ/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :