সেরা টেলিকম টাওয়ার কোম্পানি ইডটকো

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিবেদক , ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৫ এপ্রিল ২০১৯, ১০:১২

২০১৯ সালের জন্য টেলিকমিউনিকেশন অবকাঠামো সেবা সুবিধায় নেতৃস্থানীয় ইডটকো গ্রুপকে ফ্রস্ট ও সালিভানের ‘এশিয়া প্যাসিফিক টেলিকম টাওয়ার কোম্পানি অফ দ্যা ইয়ার’ পুরস্কার দেওয়া হল। এশিয়া প্যাসিফিক পর্যায়ে টানা তৃতীয় বারের মতো এই সম্মানা অর্জন করলো ইডটকো।

২০১৬ সালে ইডটকো প্রথমবারের মত সাউথইস্ট টেলিকম টাওয়ার কোম্পানি অফ দ্যা ইয়ারের সম্মান অর্জন করে।

এশিয়া প্যাসিফিক ফ্রস্ট ও সালিভানের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও হেড অব আইসিটি রিচার্ড ওং বলেছেন, ‘সেবা সুবিধা প্রদানে শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখা ছাড়াও, ইডটকো পুরো শিল্প প্রাসঙ্গিক নবায়নে অদ্বিতীয় সামর্থ্য প্রদর্শন করেছে। এই অঞ্চলে পরবর্তী প্রজন্মের প্রযুক্তির ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানটির অব্যাহত উন্নয়ন অংশীদারিত্ব শুধু উদাহরণমাত্র নয়; বরং ইডটকোর সবুজ প্রকৌশল গবেষণা ও উন্নয়ন (আরওডি) উদ্যোগ বিশেষ সাফল্য হিসেবে চিহ্নিত। গবেষণা এবং উন্নয়নের অংশ হিসেবে টাওয়ার নির্মাণের স্থিতিশীল উপাদান হিসেবে বাঁশকে এরই মধ্যে এই প্রতিষ্ঠান তাদের ৬ টি বাজারের মধ্যে তিনটিতে ব্যবহার করেছে। আমরা ভবিষ্যতেও তাদের কাছে এরকম অনুপ্রেরণাদায়ী উন্নয়ন চিন্তা দেখতে চাই।’

২০১৮ সালে ইডটকো তার স্থিতিশীল উদ্ভাবনায় টেকসই নকশা উদ্ভাবন এবং পুনঃব্যবহারযোগ্য শক্তির একটি সিরিজ স্থাপন করেছিল। যার ফলস্বরূপ চূড়ান্ত কার্যক্রমে উৎকর্ষতা বাড়ে এবং পরিবেশের উপর প্রভাব কম পড়ে। এতে প্রতিষ্ঠানটি তার কার্বন নির্গমন ৪৪ শতাংশ সফলভাবে হ্রাস করে এবং টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নের পথে দৃঢ়ভাবে অগ্রসর হয়।

সুরেশ আরও বলেন, ‘ইডটকোতে, টেকসই উন্নয়ন একটি মূল নীতি যা আমাদের সামগ্রিক ব্যবসায়িকক কার্যক্রম পরিচালনা করে, এই প্রতিশ্রুতি আমাদের প্রতিযোগিতামূলক মনোভাবকে উন্নত করে এবং একই সঙ্গে আমরা বাজারগুলিতে ইতিবাচক সামাজিক প্রভাব নিশ্চিত করি। আমি গর্বের সঙ্গে বলতে পারি, আমরা ২০১৮ সালে ১ হাজার ১১২ টি গ্রিন সাইটে পুনঃব্যবহারযোগ্য শক্তি এবং বিকল্প উপাদান ব্যবহার করেছি এবং ১০০০ টি বাড়ি কমিউনিটি উন্নয়ন উদ্যোগ “টাওয়ার টু কমিউনিটি’ এর মাধ্যমে বিদ্যুৎ সুবিধা পেয়েছে।’

(ঢাকাটাইমস/৫এপ্রিল/ এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :