নুসরাত হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাইলেন তারকারা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৩ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৫৭ | প্রকাশিত : ১৩ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৩৩

ফেনীর মাদরাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির হত্যাকারীদের শাস্তির দাবিতে দেশজুড়ে চলছে প্রতিবাদের ঝড়। এবার প্রতিবাদে অংশ নিলেন বিনোদন জগতের তারকারা।

শনিবার চলচ্চিত্র ও নাটকের অভিনেতা-অভিনেত্রী, পরিচালক, প্রযোজকসহ শোবিজের শিল্পীরা একসাথে দাঁড়িয়ে মানববন্ধন করেছেন।

মানববন্ধনে তারা অবিলম্বে নুসরাত হত্যাকারীদের সবাইকে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন। এই ধরনের ঘটনা আর যেন না ঘটে, যেজন্য অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত করার বিকল্প নেই বলেও মনে করেন শিল্পীরা।

এফডিসির সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, ‘সুষ্ঠু তদন্ত শেষে হত্যাকারীদের দ্রুত শাস্তি দাবি করছি আমরা। অপরাধীদের বিচার না হলে অপরাধ বাড়তেই থাকবে।’

মানববন্ধনে চিত্রনায়ক আলমগীর, রিয়াজ, চিত্রনায়িকা অঞ্জনা, মৌমিতা মৌ, প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু, কন্ঠশিল্পী রবি চৌধুরী, দিনাত জাহান মুন্নী, দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী সারা যাকের, নির্মাতা ও অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী, নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী অংশ নেন।

 

চিত্রনায়ক আলমগীর এই ঘটনার দ্রুত বিচার দাবি করে বলেন, ‘নুসরাতের সঙ্গে যা হয়েছে, তা বাংলাদেশের কেউ মেনে নেয়নি। নিতে পারে না। বিচারের দাবিতে আজ সবার সঙ্গে আমরা সাধারণ শিল্পীরাও রাস্তায় দাঁড়িয়েছি। সাত দিনের মধ্যে যদি সমাধানের দিকনির্দেশনা না পাই, তবে আমরা পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করব।’

নুসরাত হত্যার সঙ্গে যারা জড়িত, তাদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করে মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘নুসরাত হত্যার সঙ্গে যারা জড়িত, তাদের বাঁচাতে একটি শ্রেণি উঠেপড়ে লেগেছে। আমরা চাই, সাত দিনের মধ্যে বিচারকার্য সম্পন্ন হোক। প্রধানমন্ত্রী যে আদেশ দিয়েছেন, সেটা যেন ভিন্ন খাতে কেউ প্রবাহিত না করেন। নুসরাত হত্যাকাণ্ড এবং তার বিচার দাবি জাতীয় দাবি। এখানে ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে যেন কেউ পার না পায়।’

বক্তাদের কেউ আবার এ-ও বলেন, এই বৈশাখে যেন সবাই কালো ব্যাজ ধারণ করেন এবং নুসরাত হত্যার প্রতিবাদ অব্যাহত রাখেন। কেউ যেন বর্ষবরণের আনন্দে নুসরাত হত্যার বিষয়টি ভুলে না যান।

চিত্রনায়ক রিয়াজ বলেন, ‘মৃত্যুর আগে নুসরাত বারবার বলেছিল, যতক্ষণ নিঃশ্বাস আছে, প্রতিবাদ করে যাবে। আজ  নুসরাত নেই। তবে আমরা আছি। নুসরাতকে বলছি, আমাদের যতক্ষণ নিঃশ্বাস আছে, প্রতিবাদ করে যাব।’

রোকেয়া প্রাচী বলেন, ‘আমি লজ্জিত, কারণ, আমার জন্মভূমিতে এই ঘটনা হয়েছে। আমি নুসরাতের বিচার দাবি করছি। পাশাপাশি স্থানীয় নেতা ও প্রশাসনের যারা এই ঘটনায় অপরাধীর পাশে দাঁড়িয়েছে, তাদেরও বিচারের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।’

শহীদুল আলম সাচ্চু বলেন, ‘সন্ত্রাস দমন, জঙ্গিবাদ দমন করে সরকার আমাদের শান্তিতে ঘুমানোর ব্যবস্থা করে দিয়েছে। অথচ এই প্রশাসনের কিছু মানুষ অন্যায়কে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে। বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী আমাদের আশ্বস্ত করেছেন। তিনি যা বলেন, তা করেন। আশা করি খুব তাড়াতাড়ি এর বিচার হবে। যত দিন না কোনো সমাধান হচ্ছে, তত দিন বাংলাদেশের শিল্পী ও কলাকুশলীরা কালো ব্যাজ ধারণ করবে।’

আরও উপস্থিত ছিলেন অভিনেতা আলীরাজ, পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু, বদিউল আলম খোকন, শাহীন সুমন, শাহ মো: সংগ্রাম, হাবিবুল ইসলাম হাবিব, কচি খন্দকার, বুলবুল বিশ্বাসসহ আরো অনেকে।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির পাশাপাশি ডিরেক্টরস গিল্ডের কর্মীরাও এই মানববন্ধনে অংশ নেন।

দুর্বৃত্তদের আগুনে মৃত্যু হয়েছে সোনাগাজীর মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির। গুরুতর অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছিল তাকে। বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান নুসরাত জাহান রাফি।

এই ঘটনায় ইতোমধ্যে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়ার নির্দেশদাতা নুসরাতের মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলাসহ মোট ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এই ঘটনায় যারা জড়িত তাদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

(ঢাকাটাইমস/১৩এপ্রিল/বিইউ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :