রাজনীতি ও উন্নয়নের খবর রাখছেন কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ২১:২৯ | প্রকাশিত : ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ২০:১৯
ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে যান সাবেক নৌমন্ত্রী শাজাহান খান

সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা এখন অনেকটা ভালো। পুরোপুরি সুস্থ হতে আরও কয়েক দিন লাগতে পারে। চিকিৎসার স্বার্থে বিদেশে অবস্থান করলেও তার মন পড়ে আছে দেশে। তিনি দেশের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড, রাজনীতি এবং তার দলের বিভিন্ন বিষয়ে নিয়মিত খোঁজ-খবর রাখছেন। সময় কাটছে দেশীয় বিভিন্ন টিভি চ্যানেল এবং আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম দেখে।

সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক হারিসুল হক সাংবাদিকদের জানিয়েছেন এসব কথা।

বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের উপাচার্য কনক কান্তি বড়ুয়া প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসার খোঁজ-খবর নেয়ার জন্য অধ্যাপক হারিসুল হককে সিঙ্গাপুরে পাঠান। গত ১০ এপ্রিল তিনি সিঙ্গাপুরে যান এবং গতকাল রবিবার তিনি দেশে ফিরে আসেন।

সোমবার হারিসুল হক তার অফিসে সাংবাদিকদের বলেন, বিএসএমএমইউয়ের নিউরো মেডিসিনি বিভাগের অধ্যাপক আবু নাসার রিজভী বর্তমানে সিঙ্গাপুরে অবস্থান করছেন। প্রয়োজন হলে তিনি আবারও সিঙ্গাপুরে যাবেন।

হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ হারিসুল হক জানান, ওবায়দুল কাদের বর্তমানে হৃদযন্ত্রের কার্যকারিতা ভালো। উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ রয়েছে। তিনি নিয়মিত (দুই বেলা) হাঁটাচলা করছেন। আগামীকাল মঙ্গলবার তার চিকিৎসার বিষয়ে একটি ফলোআপ রয়েছে। তারপরই সিদ্ধান্ত হবে তিনি কবে দেশে ফিরবেন। বর্তমানে তার দেশে ফেরার মতো অবস্থা রয়েছে। তবে তার চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধের ডোজের এডজাসমেন্টের বা ওষুধের সঠিক ডোজ নিরূপণের জন্য আরও কিছুদিন সিঙ্গাপুরে থাকা প্রয়োজন এবং সে কারণেই বর্তমানে মন্ত্রী সিঙ্গাপুরে অবস্থান করছেন।

হারিসুল হক জানান, মন্ত্রী দেশবাসীকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। বাংলাদেশ থেকে কেউ গেলে উল্টো মন্ত্রীই তাদের খোঁজ-খবর রাখছেন।

বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের এই চিকিৎসক বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের বর্তমানে সিঙ্গাপুরে অবস্থান করলেও দেশের মাটিতেই তাঁর মন পড়ে আছে। কোন সড়কের উন্নয়ন কাজ কবে শেষ করতে হবে, কোন কোন ব্রিজের কাজ কবে শেষ হবে এসব তার মুখস্থ। তিনি অসম্ভব মেধাবী ও শক্তিশালী মনোভাবের অধিকারী। সাথে সাথে তিনি বিরাট মন ও হৃদয়েরও অধিকারী। সিঙ্গাপুরে যেন সব মানুষই তার আপনজন। আওয়ামী লীগের প্রত্যেক নেতাকর্মীই তার বড় প্রিয়, আপন মানুষ।’

গত ৩ মার্চ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্ডিওলজি বিভাগে ভর্তি হন ওবায়দুল হক। পরে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে থাকা অবস্থায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানেই তার বাইপাস সার্জারি করানো হয়। 

(ঢাকাটাইমস/১৫এপ্রিল/এএ/জেবি)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :