মিডিয়ায় কোনো সেন্সরশিপ নেই: তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:২৯ | প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:০০

আন্তর্জাতিক সংস্থা রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডার বাংলাদেশের গণমাধ্যম নিয়ে যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে তা নাকচ করে দিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। তিনি দাবি করেছেন, বাংলাদেশে গণমাধ্যম সংবাদ প্রকাশের ক্ষেত্রে স্বাধীনতা ভোগ করছে। সরকার মিডিয়ায় কোনো ধরনের সেন্সরশিপ আরোপ করছে না।

শুক্রবার রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। ‘রূপসী বাংলা জাতীয় আলোকচিত্র প্রদর্শনী, প্রতিযোগিতা এবং সংবর্ধনা অনুষ্ঠান’ এর আয়োজন করে বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্টস অ্যাসোসিয়েশন (বিপিজেএ)।

রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডারের বার্ষিক প্রতিবেদনে গণমাধ্যমের স্বাধীনতার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান চার ধাপ নিচে নেমে ১৫০তম হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সংগঠনটির সূত্রে, আমি জানি শীর্ষ দশটি দেশে সংবাদ প্রকাশে অনেক বিধিনিষেধ রয়েছে। এমনকি তাদেরকে (গণমাধ্যম) যেকোনো ভুল সংবাদের জন্য জরিমানা দিতে হয়। আমি জানি না তারা কীভাবে জরিপ করেছে।’

‘বাংলাদেশে গণমাধ্যম স্বাধীনভাবে কাজ করছে এবং গত ১০ বছরে গণমাধ্যম শিল্পে একটি বিপ্লব ঘটেছে। সংবাদপত্রের সংখ্যা সাতশ’ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে এক হাজার দুইশ’ হয়েছে এবং ৩৩টি ইলেকট্রনিক মিডিয়া সম্প্রচার চালাচ্ছে।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘সরকার গণমাধ্যমের কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।’

বিএনপি প্রধান বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘আদালতে দোষী সাব্যস্ত হয়ে তিনি (বেগম জিয়া) এখন কারাগারে। তিনি যদি জামিন প্রার্থনা করেন আদালতই একমাত্র তাকে জামিনে মুক্তি দিতে পারে। অন্যদিকে বেগম জিয়া যদি প্যারোলে মুক্তি চান তাহলে তার আবেদনটি সরকার বিবেচনা করবে। এছাড়া তার মুক্তির অন্য কোনো পথ নেই।’

বিএনপি’র নির্বাচিত এমপিদের সংসদে যোগদান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তারা যদি সংসদে যোগ দেয় দেশের জনগণ তাদের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাবে। আমরাও তাদের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাবো।

(ঢাকাটাইমস/১৯এপ্রিল/জেবি)
 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

গণমাধ্যম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :