ধর্ষণের ভিডিও, আত্মহত্যার চেষ্টায় স্কুলছাত্রী

গফরগাঁও প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ২০:১২

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে নবম শ্রেণি পড়ুয়া এক ছাত্রীকে বেশ কয়েকবার ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে বখাটেরা ধর্ষণের সময় ধারণকরা ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিলে ওই ছাত্রী বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। তিনি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

ঘটনাটি ঘটে গফরগাঁও উপজেলার ছয়বাড়িয়া গ্রামে।

গফরগাঁও থানা পুলিশ এবং ওই ছাত্রীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি উপজেলার ছয়বাড়িয়া গ্রামের জুয়েল মাঝির ছেলে হৃদয় (২৩) ঘরে একা পেয়ে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন। এ সময় হৃদয় তার বন্ধুদের দিয়ে ঘটনার ভিডিও ধারণ করান। এই ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে জিম্মি করে এই ছাত্রীকে আরও বেশ কয়েকবার ধর্ষণ করেন হৃদয়।

পরে ছাত্রী তার বাবা-মাকে বিষয়টি জানালে হৃদয় ও তার সহযোগিরা ছাত্রীর বাবাকে ভিডিও দেখিয়ে চুপ থাকতে বলেন। একই সঙ্গে এ নিয়ে কোনো জায়গায় অভিযোগ করলে মেরে ফেলার হুমকি দেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে ধর্ষণের ভিডিও ফেরত দেওয়ার কথা বলে হৃদয় ও তার বন্ধু রাসেলসহ তিন যুবক ওই ছাত্রীকে ছয়বাড়িয়া গ্রামের আতকা বিলের নির্জন স্থানে নিয়ে যান। সেখানে আবারো ধর্ষণের চেষ্টা চালান। এ সময় ছাত্রীর চিৎকারে গ্রামের এক কৃষক এগিয়ে এলে বখাটে হৃদয় ও তার বন্ধুরা পালিয়ে যান।

ওই ছাত্রী জানান, ধর্ষণ করতে না পেরে হৃদয় ও তার সহযোগিরা স্কুলে তাকে মারধর করেন। পরে তিনি বাড়িতে ফিরে দুপুরে ইদুর মারার বিষ পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান। বাড়ির লোকজন টের পেয়ে তাকে গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ময়মনাসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

স্কুলছাত্রীর পিতা কান্নাজড়িত কণ্ঠে ঘটনার বিচার চেয়ে বলেন, আমরা দরিদ্র ও অসহায় মানুষ। আমার মেয়েকে যারা ধর্ষণ করেছে ও ধর্ষণে সহযোগিতা করেছে তাদের তাদের বিচার চাই।

রাওনা ইউপি চেয়ার সাহাবুর আলম এ জঘন্য ঘটনার সাথে জড়িতদের শাস্তি দাবি জানিয়ে বলেন, বিষয়টি গফরগাঁও থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল আহাদ খান বলেন, ঘটনা অবহিত হওয়ার সাথে সাথে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। জড়িতদের ধরতে অভিযান চলছে।

ঢাকাটাইমস/১৯এপ্রিল/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :