‘ধর্ষকরা সমাজের জঘন্য কীট’

সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২০ এপ্রিল ২০১৯, ২০:৫২ | প্রকাশিত : ২০ এপ্রিল ২০১৯, ২০:০১

‘যারা ধর্ষক তাদের কোন ধর্ম নেই, কোন ধর্মেই পাপ কাজের কোন স্থান নেই, ধর্ষকরা কোন মানুষ না- তারা সমাজের জঘণ্য কীট।’
শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশফিকুন নাহার গোয়ালখালী গ্রামের নিহত স্কুলছাত্রী সেতু মণ্ডলের বাড়িতে এসে এসব কথা বলেন। এসময় তিনি নিহত সেতুর পরিবারকে সমবেদনা জানান।

ইউএনও বলেন, ‘আমরা সকলে মিলে এই ধর্ষকদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করব এবং তাদের শাস্তি নিশ্চিত করব। সেতুর মৃত্যুকে আত্মহত্যা বললে ভুল হবে। কারণ আমরা তার মা-বোনের কাছ থেকে যে বক্তব্য পেয়েছি, তাতে এটাই বোঝা যাচ্ছে- তাকে জোর করে হোক বা প্রলুব্ধ করে যেই ছেলেগুলোর নাম এসেছে তারা তাকে নির্যাতন করেছে এবং পরে তাকে রাস্তায় ছুড়ে ফেলেছে। মেয়েটি তার পরিবারের কাছে ফিরে আসার পর মানসম্মানের ভয়ে হয়ত তার পরিবারের কিছু ভুল ছিল। তারা আমাদের কাছে আগে শ্মরণাপন্ন হলে আমরা হয়তো মেয়েটির জীবন রক্ষা করতে পারতাম। এখন যেহেতু সেটি আমাদের হাতে নেই, মেয়েটি আতœহত্যার পথ বেছে নিয়েছে। কিন্তু যারা দোষী তাদের শাস্তি অবশ্যই হবে।

তাদেরক আমরা মোটামুটি শনাক্ত করতে পেরেছি। দুইজনকে অলরেডি আটক হয়েছে। বাকি আরো কয়েকজন সন্দেহভাজন মনে করা হচ্ছে। তাদেরও আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। আমরা এ বিষয়ে সর্বোচ্চ দৃষ্টি রাখছি। ইতোমধ্যে আমাদের কাছে একটি নির্দেশনা এসেছে প্রতিটি স্কুলে যৌন হয়রানি প্রতিরোধমূলক একটি কমিটি গঠনের জন্য। আমরা শিগগির সেটি বাস্তবায়ন করব।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা কান্তা পালসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।
চলতি মাসের ১০ এপ্রিল স্কুলে যাওযার জন্য বাসা থেকে বের হলে নিখোঁজ হয় সেতু মণ্ডল। পরদিন ১১ এপ্রিল দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার গোলাম বাজার থেকে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে তার পরিবারের কাছে সোপর্দ করে। উদ্ধারের ছয় দিনের মাথায় গত বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় ঘরের আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। ঝুলন্ত অবস্থা থেকে তাকে উদ্ধার করে মিডফোর্ড হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অপরদিকে পুলিশের ধারণা, মেয়েটি ধর্ষণের শিকার হয়েছিল এবং কোন নেশাজাতীয় দ্রব্য খাওয়ানো হয়েছিল। মেয়েটি কিছুটা স্বাভাবিক অবস্থায় আসার পরই আত্মহননের পথ বেছে নেয়।

(ঢাকাটাইমস/২০এপ্রিল/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :