পান্তের ঝড়ো ইনিংসে বৃথা রাহানের সেঞ্চুরি

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ০৯:৩১

ব্যর্থ অজিঙ্কা রাহানের অনবদ্য শতরান। জয়পুরে ঝড় তুলে দিল্লি ক্যাপিটালসকে দুরন্ত জয় এনে দিলেন রিশাব পান্ত। মূলত রিশাবের আগ্রাসী হাফ সেঞ্চুরির সুবাদেই রাজস্থান রয়্যালসকে তাদের ঘরের মাঠে ৬ উইকেটে পরাজিত করে দিল্লি।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) সোমবার মুখোমুখি হয় দিল্লি ক্যাপিটালস ও রাজস্থান রয়্যালস। প্রথমে ব্যাট করে রাজস্থান নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান তোলে। জবাবে ক্যাপিটালস ১৯.২ ওভারে ৪ উইকেটের বিনিময়ে ১৯৩ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায়।

রাজস্থানের বিরুদ্ধে জয়ের সুবাদে চেন্নাই সুপার কিংসকে টপকে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছে শ্রেয়া আয়াররা। ১১ ম্যাচে ৭টি জয় তুলে নিয়ে ক্যাপিটালসের মোট পয়েন্ট ১৪। এখান থেকে প্লে-অফে জায়গা করে নেওয়া কেবল সময়ের অপেক্ষা বলে মনে হচ্ছে ক্যাপিটালসের। চেন্নাই এক ম্যাচ কম খেলে ১৪ পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে। তবে তাদের নেট রান রেট দিল্লির তুলনায় কম।

রাজস্থান ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে নেমে রাহানে ৬৩ বলে অপরাজিত ১০৫ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলেন। আইপিএল ক্যারিয়ারে এটি তাঁর দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে তিনি প্রথম শতরানটি করেছিলেন সাত বছর আগে। ২০১২ সালে চিন্নাস্বামীতে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে ৬০ বলে অপরাজিত ১০৩ রান করেছিলেন অজিঙ্কা। সেই নিরিখে এটি শুধু তাঁর সর্বোচ্চ আইপিএল ইনিংসই নয়, বরং টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের সেবথেকে বড় ইনিংস।

এক সময় রাহানেদের দু’শোর গণ্ডি টপকে যাওয়া কেবল সময়ের অপেক্ষা বলে মনে হচ্ছিল। শুরু থেকেই ওভার প্রতি ১০ রানের গড় বজায় রাখছিল রয়্যালস। তবে ৮টি বাউন্ডারির সাহায্যে স্মিথ ৩২ বলে ৫০ রান করে আউট হওয়ার পরেই ছবিটা বদলে যায়। স্মিথের এটি চলতি আইপিএলে তৃতীয় ও উপর্যুপরি দ্বিতীয় হাফ সেঞ্চুরি।

১৫ ওভারে ২ উইকেটে ১৫০ রান তোলা রাজস্থান শেষ ৫ ওভারে আরও ৪ উইকেট হারিয়ে ৪১ রান যোগ করে। রাহানে গোটা ইনিংসে ১১টি চার ও ৩টি ছক্কা মারেন। খাতা খোলার আগেই রানআউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন স্যামসন। বেন স্টোকস ৮, টার্নার ০, বিনি ১৯ ও রায়ান পরাগ ৪ রান করে আউট হন। রাবাদা ৩৭ রানের বিনিময়ে ২টি উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট নেন ইশান্ত শর্মা, অক্ষর প্যাটেল ও ক্রিস মরিস। সবচেয়ে কৃপণ বোলিং করেছেন ইশান্ত। তিনি ৪ ওভারে ২৯ রান খরচ করেন।

বড় রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দিল্লি শুরুটা করে যথাযথ ভঙ্গিতে। ওপেনিং জুটিতে শিখর ধাওয়ান ও পৃথ্বী শ ৭.৩ ওভারে ৭২ রান যোগ করেন। ধাওয়ান ৮টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ২৭ বলে ৫৪ রান করে শ্রেয়াস গোপালের বলে আউট হন। এবারের আইপিএলে এটি তাঁর চতুর্থ হাফ সেঞ্চুরি।

শ্রেয়াস আয়ার মাত্র ৪ রান করে রায়ান পরাগের বলে আউট হন। রিশাব পান্তের সঙ্গে জুটি বেঁধে পৃথ্বী দলকে আরো এগিয়ে দেন। শেষে ৪টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ৩৯ বলে ৪২ রান করে গোপালের দ্বিতীয় শিকার হন পৃথ্বী। রাদারফোর্ড ৫ বলে ১১ রান করে ধাওয়াল কুলকারনিকে উইকেট দিলেও কলিন ইনগ্রামকে (৩) সঙ্গে নিয়ে ৪ বল বাকি থাকতেই দিল্লির জয় নিশ্চিত করেন রিশাব। শেষ পর্যন্ত ব্যক্তিগত ৭৮ রানে অপরাজিত থাকেন পান্ত। ৩৬ বলের ঝড়ো ইনিংসে ৬টি চার ও ৪টি ছক্কা হাঁকান রিশাব। ম্যাচের সেরা হয়েছেন তিনিই।

(ঢাকাটাইমস/২৩ এপ্রিল/এসইউএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :