ওয়াসার পানি

‘শরবত প্রতিবাদ’ অবহেলা করবেন না

আরিফুর রহমান
 | প্রকাশিত : ২৫ এপ্রিল ২০১৯, ১৫:০৯

রাজধানীর নাগরিকদের পানি সরবরাহের প্রতিষ্ঠান ওয়াসার সামনে গত মঙ্গলবার এক অভিনব প্রতিবাদ প্রত্যক্ষ করেছি আমরা। রাজধানীর জুরাইনের একটি পরিবার ওয়াসার সরবরাহ করা পানি দিয়ে শরবত বানিয়ে তা প্রতিষ্ঠানটির এমডিকে পান করাতে  কারওয়ান বাজারের ওয়াসা ভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছিলেন।

শেষ পর্যন্ত তারা শরবত পান করাতে না পারলেও কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দেখা করে প্রতিবাদ জানাতে পেরেছেন। ওয়াসা কর্তৃপক্ষ সরবরাহ লাইন মেরামত করে পরে শরবত খাওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তাদের।

ওই পরিবারটি একজন সচেতন নাগরিকের ভূমিকা পালন করায় আমরা তাদের ধন্যবাদ জানাই। এর মধ্য দিয়ে নগরবাসীর গুরুতর একটি সমস্যা সরাসরি ওয়াসা কর্তৃপক্ষের সামনে তুলে ধরতে পেরেছেন তারা।

পরিবারটির ক্ষোভের কারণ, ওয়াসার এমডি একটি টেলিভিশনে বলেছেন, তাদের পানি শতভাগ সুপেয়। অথচ পরিবারটি যে এলাকায় বসবাস করে, সেখানে দীর্ঘদিন ধরে ময়লা পানি আসে ওয়াসার পাইপলাইনে।

এটা অনস্বীকার্য এবং নাগরিক মাত্র জানে যে, শুধু জুরাইন নয়, ঢাকার কোথাও শতভাগ সুপেয় পানি পাওয়া কষ্টকল্পনা। কদিন আগে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) তাদের এক গবেষণায় দেখিয়েছে, ওয়াসার পানি ফুটিয়ে খেতে গিয়ে বছরে ৩৩৪ কোটি টাকার গ্যাস পুড়ছে। এই পরিসংখ্যানের প্রতিবাদ করেছেন ওয়াসার এমডি। তাহলে কে সঠিক- ওই পরিবার? নাকি ওয়াসার এমডি? নাকি টিআইবি?

ওয়াসার এমডি যে সেদিন ঠিক বলেননি তা বুধবার জানা গেল তারই এক বক্তব্যে। তিনি বললেন, ‘সম্পূর্ণ বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করা সম্ভব নয়। কারণ ওয়াসার পানি ভোক্তা পর্যায়ে যেতে যেতে ৪০ শতাংশ পর্যন্ত ব্যবহার অযোগ্য হয়ে যায়।’

ওয়াসার এমডির এই স্বীকারোক্তিকে আমরা সাধুবাদ জানাই। গত শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) আমরা এই পাতায় এক সম্পাদকীয়তে বলেছিলাম, অর্থনৈতিক, সামাজিক নানা সূচকে অগ্রগতি ঘটছে বাংলাদেশের। ক্রমবর্ধমান চাহিদার সঙ্গে তাল মিলিয়ে পানির সরবরাহও বেড়েছে উল্লেখযোগ্যভাবে। কিন্তু শতভাগ বিশুদ্ধ পানির নিশ্চয়তা এখনো অপূরিত রয়ে গেছে।

বলেছিলাম, এর একটা প্রধান কারণ পানি সরবরাহ লাইনের দুর্বলতা। বিশেষ করে কোথাও বহুদিনের পুরনো লাইন, কোথাও লাইন লিকেজ হয়ে বাইরের নোংরা পানির প্রবেশ, কোথাও অবৈধ সংযোগ- এমন নানা কারণে পানি দূষিত হচ্ছে।

ওয়াসার এমডির গতকালের বক্তব্যে এরই প্রতিধ্বনি শুনলাম আমরা। আমরা মনে করি, ত্রুটি ঢেকে রাখার চেয়ে তা স্বীকার করে সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া উত্তম। নাগরিকদের  শতভাগ সুপেয় পানি সরবরাহে ওয়াসার এখনই নতুন উদ্যোগ চাই। সরবরাহ লাইনে আরও যদি কোনো সমস্যা থাকে তা খুঁজে বের করে সংস্কার করা জরুরি। ‘শরবত প্রতিবাদ’কে অবহেলা করা বুদ্ধিমানের কাজ হবে না। ভুক্তভোগী মানুষের প্রতিবাদের পথ কিন্তু খুলে গেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজপাট বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :