রাজস্থানের কাছে হেরে বাদ পড়ার শঙ্কায় কলকাতা

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ০৯:৪৪ | প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ০৯:৪১

বাগে পেয়েও ঘরের মাঠে রাজস্থান রয়্যালসকে হারাতে পারল না কলকাতা নাইট রাইডার্স। রায়ান পরাগের মতো উঠতি তারকার কাছে কেকেআরের তারকাখচিত বোলিং লাইনআপ মাথা নত করতেই নাইটদের প্লে-অফের আশা কার্যত অস্তমিত হলো ইডেনে। আইপিএলে বৃহস্পতিবার ইডেন গার্ডেন্সে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে রাজস্থানের কাছে ৩ উইকেটে হেরেছে কলকাতা।

ব্যাটিংয়ের শুরুটা ভালো হয়নি। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকা কেকেআর শেষমেশ দিনেশ কার্তিকের অধিনায়কোচিত ইনিংসে ভর করে লড়াই করার রসদ যোগাড় করে নেয়। বরুণ অ্যারনের আগ্রাসনে হার মানেন ক্রিস লিন (০), শুবম্যান গিলরা (১৪)। নিতিশ রানা (২১) বিপর্যয় রোধের চেষ্টা করেও সফল হননি।

ব্যাটিং অর্ডার বদলেও সুনিল নারিন বড় রান করতে ব্যর্থ। ওপেনের পরিবর্তে পাঁচ নম্বরে ব্যাট করতে নামা নারিনকে ১১ রানের মাথায় রান আউট করেন অ্যারন। দুইবার জীবন পেয়েও আন্দ্রে রাসেল ১৪ রানের বেশি সংগ্রহ করতে পারেননি। কার্লোস ব্রাথওয়েট ৫ রান করে আউট হন।

একা দিনেশ কার্তিক দুরন্ত ব্যাটিং করে নাইটদের ১৭০ রানের গণ্ডি পার করান। ব্যক্তিগত শতরানের হাতছানি থাকলেও কার্তিককে থেমে যেতে হয় ৯৭ রানে। ৫০ বলের ইনিংসে নাইট দলনায়ক ৭টি চার ও ৯টি ছক্কা মারেন। অধিনায়ককে সঙ্গ দিয়ে রিঙ্কু সিং অপরাজিত থাকেন ৩ রান করে।

বরুণ অ্যারন ৪ ওভারের কোটায় ২০ রানের বিনিময়ে ২টি মূল্যবান উইকেট নেন। সঙ্গে দুরন্ত ফিল্ডিংও করেন। জফরা আর্চার উইকেট না পেলেও ৪ ওভারে ২৮ রানের বেশি খরচ করেননি। একটি করে উইকেট নেন শ্রেয়াস গোপাল, জয়দেব উনাদকাত ও থমাস। রায়ান পরাগ ১ ওভার বল করে উইকেট তুলতে না পারলেও মাত্র ৭ রান দেন।

কলকাতা শেষমেশ নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটের বিনিময়ে ১৭৫ রান তোলে। অর্থাৎ জয়ের জন্য রাজস্থানের লক্ষ্যমাত্রা দাঁড়ায় ১৭৬। ইডেনের পিচ অনুযায়ী কাজটা খুব কঠিন না হলেও একসময় পরপর উইকেট হারিয়ে হারের আতঙ্কে ভুগতে শুরু করে রয়্যালস।

রাজস্থান ওপেনিং জুটিতে ৫৩ রান তোলে। তবে ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে রাহানে ২১ বলে ৩৪ রান করে সাজঘরে ফেরার পরই ছবিটা বদলে যায়। পরের দুই ওভারে রাজস্থান খোয়ায় সঞ্জু স্যামসন (২২) ও স্টিভ স্মিথের (২) উইকেট। স্টোকস ১১ রানের বেশি যোগদান রাখতে পারেননি। স্টুয়ার্ট বিনিও ১১ রান করে ডাগ আউটে ফিরে যান।

৯৮ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর রাজস্থানকে লড়াইয়ে ফেরান ১৭ বছর বয়সী রায়ান পরাগ। তিনি শ্রেয়াস গোপাল ও জফরা আর্চারকে সঙ্গে নিয়ে দলকে জয়ের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেন। গোপাল ১৮ রান করে উইকেট দিয়ে আসেন। ১৯তম ওভারের পঞ্চম বলে দূর্ভাগ্যজনক হিট উইকেটের শিকার হন পরাগ। সাজঘরে ফেরার আগে ৫টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ৩১ বলে ৪৭ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন তিরি।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য ৯ রান দরকার ছিল রাজস্থানের। জফরা আর্চার একটি চার ও একটি ছক্কার সাহায্যে দুই বলেই ম্যাচে যবনিকা টেনে দেন। আর্চার অপরাজিত থাকেন ১২ বলে ২৭ রান করে। রাজস্থান ১৯.২ ওভারে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ১৭৭ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায়।

পীযুশ চাওলা ৩টি ও সুনিল নারিন ২টি উইকেট নিলেও দলের জয় নিশ্চিত করতে পারেননি। কামব্যাক ম্যাচে দুরন্ত বোলিংয়ের সুবাদে ম্যাচের সেরা হন বরুণ অ্যারন। এই জয়ের ফলে ১১ ম্যাচে রাজস্থানের পয়েন্ট দাঁড়ায় ৮। সমসংখ্যক ম্যাচে কেকেআর ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের পয়েন্টও ৮। তবে রান রেটের হেরফেরে কলকাতা ৬, রাজস্থান ৭ এবং আরসিবি ৮ নম্বরে রয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২৬ এপ্রিল/এসইউএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :