দেশে রবির ডিজিটাল ইফতার ভেন্ডিং মেশিন চালু

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৬ মে ২০১৯, ১৬:৩১

পবিত্র রমজান মাসে গ্রাহকেরা যাতে সহজেই দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারেন এ জন্য একটি উদ্ভাবনী ডিজিটাল সেবা এনেছে রবি। এর মাধ্যমে দেশে প্রথমবারের মতো ডিজিটাল উপায়ে যাকাত ও সদকা প্রদান করতে পারবেন রবির গ্রাহকরা। জনপ্রিয় সমন্বিত ইসলামিক লাইফস্টাইল অ্যাপ নূর ব্যবহার করে গ্রাহকরা নির্ভরযোগ্য কয়েকটি দাতব্য সংস্থায় এ অনুদান প্রদান করতে পারবেন। 

অনলাইন যাকাত ও সদকা ফিচারের পাশাপাশি রবি বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের সহায়তায় দেশে প্রথমবারের মতো চালু করতে যাচ্ছে ডিজিটাল ইফতার ভেন্ডিং মেশিন- ‘আমার ইফতার’। এর মাধ্যমে রমজান মাসজুড়ে ইফতার পাবে পথশিশু এবং সমাজের সুবিধা বঞ্চিত বয়ষ্ক ব্যক্তিরা। 

রিচার্জ বান্ডল কেনার মাধ্যমে ‘আমার ইফতার’ উদ্যোগে অনুদানের সুযোগ পাবেন রবির গ্রাহকরা। এর আওতায় বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনকে প্রতি ৪৩ টাকা বান্ডলে ২ টাকা এবং প্রতি ১১৮ টাকা বান্ডলে ৪ টাকা প্রদান করবে রবি। ৪৩ টাকা ও ১১৮ টাকা রিচার্জ বান্ডল অফারের আওতায় যথাক্রমে ৭ দিন ও ১০ দিন মেয়াদে ৭৫ মিনিট ও ২১৫ মিনিট টকটাইম পাবেন গ্রাহকরা।

আজ রাজধানীর একটি হোটেলে গণমাধ্যমের উপস্থিতিতে অনন্য এই উদ্যোগটি উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সেক্রেটারি এবং জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, এনডিসি। এসময় রবির উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ কোম্পানির ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।  

দেশের প্রথম ডিজিটাল ইফতার ভেন্ডিং মেশিনগুলো ঢাকা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, রংপুর ও রাজশাহীর বিভিন্ন স্থানে স্থাপন করা হবে। বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবকরা সুবিধা বঞ্চিত শিশু ও বয়ষ্কদের বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত করবেন। ভেন্ডিং মেশিনে তাদের আঙুলের ছাপ দিয়ে নির্ধারিত ইফতার সংগ্রহ করতে পারবেন নিবন্ধিত সুবিধাভোগীরা। 

রবি’র গ্রাহকরা নূর অ্যাপের মাধ্যমে তাদের জন্য প্রযোজ্য যাকাতের পরিমাণ হিসাব করতে এবং ডিজিটাল পেমেন্ট গেটওয়ে; যেমন: ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড অথবা মোবাইল আর্থিক সেবা প্রদানকারী অপারেটরের মাধ্যমে যাকাত প্রদান করতে পারবেন। নূর অ্যাপের মাধ্যমে সদকা প্রদানেরও সুযোগ পাবেন রবি’র গ্রাহকরা। যাকাত ও সদকা হিসেবে সংগৃহীত সকল অনুদান আহছানিয়া মিশন ক্যান্সার অ্যান্ড জেনারেল হাসপাতাল, বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন, চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এজ কেয়ার, স্কলার্স স্পেশাল স্কুল ফর স্পেশাল নিডস চিলড্রেন, রহমত-ই-আলম মিশন এবং ইসলাম মিশন এতিমখানায় পাঠানো হবে।

নূর অ্যাপ প্লাটফর্ম ব্যবহার করে যাকাত বা সদকা পরিশোধের জন্য গ্রাহকদের রবি’কে কোন ধরণের চার্জ প্রদান করতে হবেনা। তবে কার্ডের মাধ্যমে অর্থ প্রদানের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক বা পেমেন্ট কোম্পানি স্বল্প চার্জ নিতে পারে। 

এনবিআর’র চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, এনডিসি বলেন, ‘অ্যাপসের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের দান-অনুদানের যে মহৎ উদ্যোগ রবি নিয়েছে সে জন্য তাদেরকে ধন্যবাদ। এমন মহতী উদ্যোগের প্রচারের দায়িত্ব প্রাথমিকভাবে রবির হলেও একই সাথে গণমাধ্যম ও যে পাঁচটি প্রতিষ্ঠান এই অনুদান পাবে তাদেরকেও এ দায়িত্ব নিতে হবে।’’

রবির ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘যাকাত, সদকা বা বিনামূল্যে ইফতার যাই হোক না কেন এর মাধ্যমে পবিত্র রমজান মাসে ডিজিটাল উপায়ে দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়ানোর সুযোগ পাচ্ছেন রবি’র গ্রাহকরা। আমাদের এ উদ্যোগ স্পষ্টতই প্রমাণ করে যে ডিজিটাল উদ্ভাবনী সেবাগুলো আমাদের আরো স্বাচ্ছন্দ্যময় জীবনের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। উদ্যোগটি বাস্তবায়নে সকল সহযোগীদের আমি আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।’

(ঢাকাটাইমস/৬মে/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :