গুলিতে ‘ধর্ষণ ও এসিড নিক্ষেপ’ মামলার আসামি নিহত

মেহেরপুর প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১১ মে ২০১৯, ০৯:৪৯

মেহেরপুরে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ইয়াকুব আলী কাজল নামে ২৩ বছর বয়সী এক যুবক নিহত হয়েছেন। যিনি স্কুলছাত্রী ধর্ষণ ও গৃহবধূকে এসিড নিক্ষেপ মামলার আসামি বলে দাবি করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীটি।

শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে গাংনী উপজেলার গাড়াডোব গ্রামের একটি বাঁশবাগানে এ ঘটনা ঘটে। নিহত কাজল গাড়াডোব গ্রামের জালাল উদ্দীন হাবুর ছেলে। সেখান থেকে উদ্ধার করা হয়েছে অস্ত্র ও গুলি।

গাংনী থানার পরিদর্শক তদন্ত সাজেদুল ইসলাম জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে ধর্ষণ ও এসিড নিক্ষেপের অপরাধ স্বীকার করে কাজল। তার নেতৃত্বে গাড়াডোব গ্রামের বেশ কয়েকজন যুবক বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত। বেশ কয়েকটি অস্ত্র রয়েছে এমন তথ্যে দিলে রাতেই তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে গাড়াডোব গ্রামে যায় পুলিশের একটি দল। এ সময় কাজলের দলের লোকজন পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় কাজলকে উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

এ ঘটনায় দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে একটি সার্টার গান দুই রাউন্ড গুলি ও একটি রাম দা।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২০ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় গাড়াডোব গ্রামের এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণের পর গণধর্ষণ করে কাজলসহ কয়েকজন। ওই ঘটনায় স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে গাংনী থানায় একটি মামলা করেন। মামলার প্রধান আসামি ইয়াকুব হোসেন কাজল।

অপরদিকে ধলা গ্রামের এক গৃহবধূকে প্রেমের প্রস্তাব দিলে তা প্রত্যাখ্যান করায় ওই গৃহবধূর শরীরে এসিড নিক্ষেপ করে কাজল।

ঢাকাটাইমস/১১মে/প্রতিনিধি/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :