মোদিই প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন: অমিত শাহ

এখনই দেশবাসীকে ধন্যবাদ মোদির

ঢাকাটাইমস ডেস্ক
 | প্রকাশিত : ১৭ মে ২০১৯, ২১:৫৪

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের সপ্তম বা শেষ দফা ভোট আগামী রবিবার। ইতিমধ্যে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শেষ হয়েছে। সাত দফার নির্বাচনের প্রচার পর্বের শেষে শুক্রবার সাংবাদিকদের সঙ্গে বৈঠক করল বিজেপি। এতে বক্তব্য দেন কংগ্রেসের সভাপতি বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। অন্যদিকে একই দিন সংবাদ সম্মেলনে করেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। তারা পরস্পরের বিরুদ্ধে তুলেছেন নানা অভিযোগ আর উদগার করেছেন বিষ। 
দিল্লিতে বিজেপি সদর কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। ছিলেন বিজেপির অন্য নেতা-নেত্রীরাও।

ফের সরকার গঠনে আশাবাদী বিজেপি। অমিত শাহ বলেন, এ বারও বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গঠন করবে বিজেপি। 

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ফের ক্ষমতাসীন হওয়ার আশা করে বলেন, ‘আমাদের সরকারে একটাই বিশেষত্ব ছিল, একদম শেষ প্রান্তের মানুষটির সঙ্গেও যোগাযোগ করেছি। নতুন সরকার আবারও আমরা শুরু করব। ইমানদারি ১৭ মে থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছিল, সাট্টা বাজারে সবাই ডুবে গিয়েছিল। আমি ফের আপনাদের আশীর্বাদ নিতে এসেছি, এবং আমি দেখতে পাচ্ছি, দেশবাসী আগেই সেই সমর্থন দিয়ে রেখেছে। এর সঙ্গেই দেশবাসীকে ধন্যবাদ দিতে চাই। 
মোদি বলেন, পাঁচ বছরে অনেক উত্থান-পতন এসেছে, কিন্তু কখনও দেশ অসুরক্ষিত হয়নি। আমি শুধু এটাই বলেছি, আমি আপনাদের কাছে এসেছি ধন্যবাদ দেওয়ার জন্য। 

তার প্রধানমন্ত্রী হওয়া এবং অন্যদের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার তহুলনা করতে গিয়ে মোদি বলেন, অন্যরা পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন, নয়তো পারিবারিক সূত্রে।  আমার মতো পূর্ণ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে একই সরকার পরপর দুবার নির্বাচিত হয়ে আসছে, এটা বিরাট বিষয়। 

মোদি বলেন, আজ যখন সরকার সক্ষম হয়, তখন আইপিএল, নবরাত্রি, রমজান থেকে সবকিছুই শান্তিতে হয়। আমাগের গণতন্ত্র কত শক্তিশালী, সেটা বিশ্ববাসী দেখেই বুঝতে পারে। আমি মনে করি, কিছু কথা আমরা সারা দেশের কাছে গর্ব করে বলতে পারি যে, এটা বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্র। আজ লোকজন পাল্টে গিয়েছে, দেখে ভালো লাগছে। 

নিজের অতীতকে ভুলে যাননি মোদি। সংবাদ সম্মেলনে সে কথাও তুলে আনেন। বলেন, ‘দলের নেতাদের জন্য চা বানাতাম। প্রথমে তো আমি এই কাজটাই করতাম।’ 

মোদিই প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন: অমিত শাহ

৩০০-রও বেশি আসন পাবে বিজেপি জোট- এমন দাবি করে অমিত শাহ বলেন, ‘আমরা জিতব এতে কোনও সন্দেহ নেই আমার। ২৩ মে যখন ভোটের ফল ঘোষণা হবে, তখনই বোঝা যাবে, দেশে ফের মোদিই প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন। 

সংবাদ সম্মেলনে মোদির নির্বাচনী প্রচারণার পরিসংখ্যান তুলে ধরেন অমিত, ‘৩৮০০ বিধানসভা এলাকায় সভা করেছেন মোদি। তিন দিন এমনও ছিল, যেখাানে ৪০০০ কিলোমিটারেরও বেশি যাত্রা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এক দিনে ৫-৬টি জনসভাও করেছেন। গোটা প্রক্রিয়ায় ১৪২টি নির্বাচনী জনসভা করেছেন, চারটি রোড শো করেছেন। ফেব্রুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত দেশের এমন কোনও জায়গা নেই, যেখানে মোদিজি যাননি।  স্বাধীনতার পর দেশে এটাই সবচেয়ে বড় নির্বাচনী অভিযানে যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। 

‘ফির একবার মোদী সরকার’- এই স্লোগানও সাধারণ মানুষের মধ্যে উঠে এসেছে দাবি করে বিজেপি-প্রধান বলেন, সেই কারণেই তারা বিজেপির নির্বাচনী কার্যক্রমে যোগ দিয়েছেন। তারা অধিকাংশই বিজেপি কর্মী বা সমর্থক ছিলেন না, তবু তারা চেয়েছেন মোদি ফের প্রধানমন্ত্রী হোন। প্রধানমন্ত্রীর জনপ্রিয়তার কারণে প্রচুর ভলান্টিয়ার আমরা পেয়েছি। এবারই প্রথম কোনও সরকাররের বিরুদ্ধে কোনও দুর্নীতির অভিযোগ নেই। সারা দেশে ফের বিজেপির পক্ষেই রায় দেবেন সাধারণ মানুষ।’

(ঢাকাটাইমস/১৭মে/মোআ)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :