মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার

সরকারের উদ্যোগের সাফল্য কামনা করি

আরিফুর রহমান
 | প্রকাশিত : ২১ মে ২০১৯, ১৪:৫১

আলো দেখাচ্ছে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার। দুই দেশের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নেওয়ার প্রক্রিয়া ফের চালু করার ব্যাপারে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছে মালয়েশিয়া।

এখন কী প্রক্রিয়ায় কর্মী নেওয়া হবে, সেই খসড়া অনুমোদনের জন্য দেশটির মন্ত্রিসভায় তোলা হবে। এ ছাড়া মাসের শেষ দিকে বা আগামী মাসের শুরুর দিকে দুই দেশের জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের (জেডব্লিউজি) বৈঠক হবে। ওই বৈঠকে নতুন করে কর্মী নেওয়ার বিষয়টির অগ্রগতি আশা করছে বাংলাদেশ। সব প্রক্রিয়া শেষ করে আবার মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানো শুরু করতে অন্তত কমপক্ষে দুই মাস লাগতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছে।

গত ১৪ মে দুই দেশের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে মালয়েশিয়ার তরফে জানানো হয়, অতীতের মতো কোনো বিশেষ পক্ষের কাছে এ বাজারটি জিম্মি হয়ে পড়–ক, তা চান না তারা। বাংলাদেশের সব এজেন্সির জন্য বাজারটি উন্মুক্ত থাকবে, এমনটাই তাদের প্রত্যাশা। বৈঠকে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী ইমরান আহমদ এ প্রস্তাবে সম্মত হয়েছেন।

জনশক্তি রপ্তানিকারকরাও মনে করেন, অন্যতম এই শ্রমবাজারটি সবার জন্য উন্মুক্ত থাকা প্রয়োজন। এতে ভালো রিক্রুটমেন্ট হবে। সুস্থ ব্যবসায়িক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ভালো লোক পাঠানো সম্ভব হবে। ভিসা ট্রেডিং কমে আসবে। জনশক্তি রপ্তানিকারকদের সংগঠন বায়রাও এ বিষয়ে প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে পাঁচটি সুপারিশ জমা দিয়েছে। যেখানে মালয়েশিয়ার বাজারটি সবার জন্য উন্মুক্ত রাখার বিষয়ে সুপারিশ করা হয়েছে।

এ কথা অস্বীকার করার সুযোগ নেই যে, বৈদেশিক মুদ্রা আয়ের একটা বড় মাধ্যম প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স। বিশ^জুড়ে চরম অর্থনৈতিক মন্দার মধ্যেও বাংলাদেশের অর্থনীতি সচল রাখতে সহায়ক হয়েছে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স। তাদের শ্রম ও ঘামে আমাদের অর্থনীতির চাকা ঘুরছে। তাই প্রবাসীকর্মীদের কল্যাণের বিষয়টি সব সময়ই গুরুত্ব দিতে হবে।

জনশক্তি রপ্তানির বাজার সম্প্রসারণ করাও জরুরি। বাংলাদেশের কর্মীবান্ধব নতুন ও সম্ভাবনাময় শ্রমবাজার খুঁজে বের করতে হবে। কারণ বেকারত্বের হার কমাতে দেশের অভ্যন্তরে কর্মসংস্থান বৃদ্ধির পাশাপাশি বিদেশে নতুন শ্রমবাজার তৈরি করা গেলে তা থেকে দীর্ঘমেয়াদে সুফল পাওয়া যাবে। বিশেষ করে এখনো বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশগুলোতে দক্ষ শ্রমিকের চাহিদা রয়েছে।

সর্বোপরি মালয়েশিয়ার বন্ধ শ্রমবাজার খুলতে সরকার তরফে যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, তাকে আমরা সাধুবাদ জানাই। আমরা আশা করি, শিগগির দুই দেশের মধ্যে ফলপ্রসূ আলোচনার মধ্য দিয়ে দীর্ঘ প্রায় আট মাস বন্ধ থাকা এই বাজার উন্মুক্ত হবে। কাজ নিয়ে বিদেশে গমনেচ্ছুরা কর্মসংস্থানের সুযোগ পাবেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজপাট বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :