ইফতার শুধু রোজাদারের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য

শামসুদ্দিন আহমেদ
 | প্রকাশিত : ২২ মে ২০১৯, ১৫:২৬

২১ মে মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে দেখছি ফেসবুকের ওয়ালে ইফতার অনুষ্ঠানে যোগদানের শত শত সেলফি ঝুলছে। আগেরদিন থেকে দেখছি আমন্ত্রণপত্রের ছবি আর ছবি। এনিয়ে আমার কোনো মন্তব্য নেই। আপত্তিটা অন্যত্র।

আমি যতটুকু জানি, একজন রোজাদার সারাদিন রোজা শেষে যে খাদ্য (পানি, খেজুর, ফল, শরবত, ফলের রস বা ভাজাপোড়া, কিংবা অন্য কোনো খাবার) গ্রহণ করেন সেটিকে ইফতার বলা হয়। এই ‘ইফতার’ শব্দটা শুধু রোজাদারের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। যারা রোজা রাখেন না, রাখতে পারেন না কিংবা অন্য ধর্মে বিশ্বাসী তারা কিন্তু ওই একই সময়ে যাই খান বা পান করেন না কেন-সেটিকে কোনো অবস্থাতেই ইফতার বলা যাবে না। এটা তার জন্য অন্য যেকোনো মাসের সান্ধ্যকালীন খাবারের মতোই।

একইভাবে ইসলামের বিধান অনুসারে সিয়াম পালনকে রোজা বলা হয়। অন্যথায় সারাদিন কিছু না খেলেও সেটিকে রোজা না বলে স্রেফ উপোস বলা সমীচীন। 

লেখক: সাংবাদিক

সংবাদটি শেয়ার করুন

ফেসবুক কর্নার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :