নজরুলসংগীত শিল্পী খালিদ হোসেন আর নেই

বিনোদন প্রতিবেদক
 | প্রকাশিত : ২৩ মে ২০১৯, ১১:২৯

১৮ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর না ফেরার দেশে চলে গেলেন বরেণ্য নজরুলসংগীত শিল্পী ও সংগীতের গুরু খালিদ হোসেন। বুধবার রাত সোয়া ১০টার দিকে রাজধানীর জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ছাড়েন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। গত ৪ মে থেকে শিল্পী এই হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে ( সিসিইউ) চিকিৎসাধীন ছিলেন।

মৃত্যুকালে প্রখ্যাত সংগীত বিশারদ খালিদ হোসেনের বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। আজ বৃহস্পতিবার গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়ায় মায়ের কবরে তাকে দাফন করা হবে। গণমাধ্যমকে এ কথা জানান সদ্য প্রয়াত শিল্পীর ছেলে আসিফ হোসেন।

খালিদ হোসেন দীর্ঘদিন ধরে হৃদরোগে ভুগছিলেন। সম্প্রতি তার কিডনির সমস্যা বেড়ে গিয়েছিল। সমস্যা দেখা দিয়েছিল ফুঁসফুসেও। পাশাপাশি বার্ধক্যজনিত নানা অসুখও তাকে কাহিল করে ফেলেছিল। তার শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন বলে সপ্তাহ খানেক আগেই জানিয়েছিলেন জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

ওই সময় খালিদ হোসেনের অসুস্থতার ব্যাপারে ছেলে আসিফ হোসেন জানিয়েছিলেন, ‘চিকিৎসার জন্য বাবাকে প্রতিমাসেই একবার করে হাসপাতালে আনা হয়। দুই-তিন দিন তিনি সিসিইউতে ভর্তি থাকেন। একটু সুস্থ হলে বাসায় নেয়া হয়। কিন্তু গত ৪ মে ভর্তি করার পর বাবার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে না। তার অবস্থা একেবারেই খারাপ।’

অবশেষে সবার আশঙ্কাকে সত্যি করে বুধবার রাতে চলে গেলেন খালিদ হোসেন। এর মধ্য দিয়ে সুবীর নন্দীর পর চলতি বছরে সংগীতের আকাশ থেকে ঝরে গেল আরও উজ্জ্বল নক্ষত্র। খালিদ হোসেনের মৃত্যুতে সংগীতাঙ্গণে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। অনেক শিল্পী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন এবং রুহের মাগফিরাত কামনা করেছেন।

গান গাওয়ার পাশাপাশি খালিদ হোসেন দীর্ঘদিন নজরুল সংগীতের শিক্ষকতা করেছেন। দেশ-বিদেশে তার অসংখ্য ছাত্রছাত্রী রয়েছে। সংগীতে বিশেষ অবদানের জন্য ২০০০ সালে তাকে একুশে পদক দেয়া হয়। এছাড়া পেয়েছেন নজরুল একাডেমি পদক, শিল্পকলা একাডেমি পদক ও কলকাতা থেকে চুরুলিয়া পদকসহ অসংখ্য সম্মাননা।

ঢাকাটাইমস/২৩ মে/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত