এসিআইয়ের ‘হিসাব কারসাজি’র চিহ্নি‎ত করেছে ডিএসই

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৪ মে ২০১৯, ০৯:৪১

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এসিআই লিমিটেডের ‘হিসাব কারসাজি’র কিছু বিষয় চিহ্নিত করেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) গঠিত বিশেষ তদন্ত কমিটি। সেই প্রতিবেদন তদন্ত কমিটি গতকাল ডিএসই বোর্ডের কাছে উপস্থাপন করে। 
বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কোম্পানিটির বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কাছে প্রতিবেদনটি পাঠাবে ডিএসই। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

সহযোগী প্রতিষ্ঠান ‘স্বপ্ন’-এর লোকসান দেখিয়ে অর্থ সরিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তালিকাভুক্ত কোম্পানি এসিআইয়ের বিরুদ্ধে।  সেটি আরও নিবিড়ভাবে খতিয়ে দেখতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষকে দায়িত্ব দিয়েছিল বিশেষ তদন্ত কমিটি।

জানা যায়, এসিআই ও স্বপ্নের আর্থিক বিবরণী খতিয়ে দেখতে এবং হিসাবে কোনো কারসাজি থাকলে সেগুলো চিহ্নিত করতে ডিএসইর ম্যানেজমেন্টকে ৭ দিন সময় দেওয়া হয়েছিল। তাদের কাছ থেকে পাওয়া প্রতিবেদনের আলোকে কোম্পানিটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থার সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা ছিল ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের।

কিন্তু ডিএসই থেকে দেয়া শোকজের জবাবে এসিআই তার সাবসিডিয়ারি কোম্পানি লোকসান হওয়ার কথা জানায়। জবাবে বলেছিল, কোম্পানির বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) শেয়ারহোল্ডাররা দাবি তুলেছে সারা দেশে সাবসিডিয়ারি কোম্পানি স্বপ্নের আউটলেট খোলা হোক। তাতে যদি লোকসান হয় তা শেয়ারহোল্ডাররা মেনে নেবে। আর তাই শেয়ারহোল্ডারদের দাবির মুখে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ স্বপ্নে বিনিয়োগ বাড়িয়েছে। এতে লোকসান বেড়েছে এসিআই লিমিটেডের।
ডিএসইর তদন্ত কমিটি এসিআইয়ের দেওয়া জবাবকে অগ্রহণযোগ্য মনে করে। কমিটির মতে, জেনে-বুঝে কোনো শেয়ারহোল্ডার লোকসান মেনে নেওয়ার কথা বলতে পারেন না। এটি খুবই রহস্যপূর্ণ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তদন্ত কমিটির একজন সদস্য বলেছিলেন, ‘আমরা এখন পর্যন্ত যে বিশ্লেষণ করেছি, তাতে স্বপ্ন ও এসিআইয়ের লোকসানের বিষয়টি অস্বাভাবিক ও অসৎ উদ্দেশ্যপূর্ণ মনে হয়েছে। আর সত্যিই যদি স্বপ্ন এত লোকসানি হয়ে থাকে তাহলে এসিআইয়ের পরিচালনা পর্ষদের উচিত ছিল অনেক আগেই সেটি বন্ধ করে দেওয়া। কারণ এটি একটি তালিকাভুক্ত কোম্পানি। শুধু উদ্যোক্তারা এর মালিক নন, হাজার হাজার বিনিয়োগকারীও এর মালিকানায় রয়েছে। তাই উদ্যোক্তাদের স্বপ্ন পূরণ ও খামখেয়ালির জন্য সাধারণ বিনিয়োগকারীদের এভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ও বঞ্চিত করার অধিকার তাদের নেই।

চলতি হিসাব বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের লোকসানসহ কোম্পানির গত কয়েক বছরের আর্থিক বিবরণীর তথ্য নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পরিচালকদের মনে। তারা মনে করছেন, এসিআইয়ের সাম্প্রতিক বছরগুলোর আর্থিক বিবরণী মনগড়া ও কারসাজিপূর্ণ।  কোম্পানিটি তার সহযোগী প্রতিষ্ঠান এসিআই লজিস্টিক লিমিটেডের (স্বপ্ন) ‘কথিত’ লোকসানের আড়ালে মূল কোম্পানি থেকে টাকা সরিয়ে নিচ্ছে। আর তাই বিষয়টি খতিয়ে দেখতে ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদ পরিচালক বিচারপতি ছিদ্দিকুর রহমান ভুইয়ার নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছিল।

ঢাকাটাইমস/২৪মে/আরএ/এমআ

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :