এগিয়ে যাক জয়রথ

হাবিবুল্লাহ ফাহাদ
 | প্রকাশিত : ০৩ জুন ২০১৯, ১৬:৪০

আমাদের যাপিত জীবনে খুব বেশি আনন্দের উপলক্ষ নেই। ঈদের আগে বাংলাদেশ দলের অনবদ্য জয় বাড়তি পাওয়া। বেতনের সাথে বোনাসের মতো। আমাদের বিশ্বাস ছিল মাশরাফিদের ওপর। তারা ভালো খেলছে দীর্ঘদিন ধরে। জয়ের ধারাবাহিকতা না থাকলেও টানা পরাজয়ের খাতাটাও লম্বা নয়। এক সময় ক্রিকেটে আমাদের অবস্থান যেমনটাই থাকুক, এখন বলার মতো অবস্থা রয়েছে।

হ্যাঁ, এ কথাও ঠিক যে, বিশ্বের ক্রিকেট পরাক্রমশালীদের চেয়ে আমরা পিছিয়ে। তাই বলে অবজ্ঞা করার সুযোগ নেই। আর যাই হোক, বাইশ গজের শক্তিশালী বীরদের মুখোমুখি হওয়ার হিম্মত আমাদের আছে। সেই সাহস আছে। মনোবলও প্রবল।

এটি একদিনে হয়নি। আমরা হারতে হারতে শিখেছি। খেলতে খেলতে শক্ত হয়েছে আমাদের পেশী। হেরে যাওয়া মানে যে হার মানা নয়, এই বোধটুকু বোধ করি টাইগারদের হৃদয়ে গেঁথেছে।

বিশ্বকাপের শুরুটা হয়েছিল স্বাগতিক ইংল্যান্ড আর সাউথ আফ্রিকার ম্যাচে। ১০৪ রানে হেরেছিলেন ডু প্লেসিরা। ইংল্যান্ড যে এবার হিসাবে এগিয়ে আছে, শুরুর ম্যাচে প্রমাণ মিলেছে। ক্যারিবিয়ানদের সাথে পাকিস্তানের ম্যাচটি পুরোটাই ছিল একপেশে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ছন্দ ছিল না। সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে বাংলাদেশ সেই ছন্দ ফিরিয়েছে। শুরু থেকে শেষ অবধি খেলায় টানটান উত্তেজনা বলতে যা বোঝায়, ছিল। হাড্ডাহাড্ডি লড়াই দেখেছে বিশ্ব। খেলার একটা সময় মনে হয়েছে, ব্যাট-বল বাংলাদেশের কথা বলছে। আবার চিত্র বদলেছে। মেঘ কেটেছে ডু প্লেসিদের আকাশে। শেষটায় অবশ্য মোস্তাফিজ, সাকিবরা আকাশ ফুঁড়ে সেই মেঘ তাড়িয়ে দিয়েছে সাউথ আফ্রিকান ভক্ত-সমর্থকদের মাথার ওপর।

আমরা হেসেছি। আনন্দে উদ্বেলিত হয়েছি। সুখ সুখ অনুভূতি নিয়ে ঘুমোতে গেছি। কিন্তু প্রোটিয়া ভক্তকূল বেদনায় কাতর হয়েছে। চোখ ভিজেছে জলে। টিভির মনিটরে সে দৃশ্যের কিছুটা আমরা দেখেছি।

তবে খেলায় জয়-পরাজয় থাকবেই। বিশ্বকাপ মিশনে বাংলাদেশ দলের শুরুটা আমাদের প্রত্যাশা বাড়িয়ে দিয়েছে। সামনের খেলাগুলোতে আমাদের চাওয়াটাও বেশি থাকবে। এটাই স্বাভাবিক। প্রাপ্তির সাথে তাল মিলিয়ে প্রত্যাশাও বাড়ে। প্রত্যাশা সব সময়ই এগিয়ে থাকে।

টাইগারদের জন্য শুভ কামনা। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে তাদের অর্জন তারা ভুলে যাবে না। জয়ের ম্যাচেও আমাদের অনেক সীমাবদ্ধতা ছিল। এগুলো কাটিয়ে উঠতে হবে।  ১১ জন টাইগার মাঠে নামলেও সাথে থাকে ১৬ কোটির শুভ কামনা। ১৬ কোটি হৃদয়ের আবেগ। সাকিব, মুশফিক, মাহমুদুল্লাহরা সেই আবেগের মূল্য দিতে জানেন। বিশ্বাস করি, বিশ্বকাপ মিশনে শুরুর মতো শেষটাও ভালো হবে। অটুট থাকুক টাইগাদের জয়রথ, এই কামনা। বাতাসে ধ্বনিত হচ্ছে আজ- খেলবে টাইগার। জিতবে টাইগার।       

লেখক: সাংবাদিক

সংবাদটি শেয়ার করুন

মতামত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :