ভুল চিকিৎসায় মৃত্যু:ক্লিনিক পরিচালক ও চিকিৎসক আটক

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ জুন ২০১৯, ২১:৫০

ভুল চিকিৎসায় রিমার মৃত্যুর ছয়দিন পর আটক হলো জননী ক্লিনিক ও জায়াগনস্টিক সেন্টারের পরিচালক নাজমুল হক ও একই ক্লিনিকের চিকিৎসক নুর মোহাম্মদ নুরু।

বুধবার সকালে গোমস্তপুর থানার পিস্তল মোড় এলাকা থেকে তাদের আটক করে পুলিশ।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরের আক্কেলপুরে একটি বেসরকারি ক্লিনিকের পরিচালক ডাক্তার না হয়েও ১৪ জুন ওই এলাকার রিমা বেগম নামে এক প্রসূতির অস্ত্রোপচার করে। পরে প্রসূতির মৃত্যু হলে তিনজনকে আসামি করে ওই দিন গোমস্তাপুর থানায় হত্যা মামলা করে রিমার পরিবার। তবে ১৪ জুন বিভিন্ন গণমাধ্যমে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ শিরোনামে সংবাদ প্রচার হলে পুলিশ তৎপর হয়। মৃত্যুর ছয় দিন পর অর্থাৎ আজ (বুধবার) সকালে  জননী ক্লিনিক ও জায়াগনস্টিক সেন্টারের পরিচালক নাজমুল হক ও ওই ক্লিনিকের চিকিৎসক নুর মোহাম্মদ নুরুকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

তদন্তকারী কর্মকর্তা মোতাহার আলী জানান, বিভিন্ন ইলেকট্রনিক মিডিয়া ও প্রিন্ট মিডিয়ায় সংবাদটি প্রচার হলে পুলিশ তৎপর হয়। গতকাল (মঙ্গলবার) রাতে গোপন সংবাদে পুলিশ জানতে পারে নওগাঁর সাপাহার বাজারে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে নুর মোহাম্মদ আছে এবং সেখান থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। নুর মোহাম্মদের তথ্যে বুধবার সকালে গোমস্তাপুর উপজেলার পিস্তল মোড় এলাকা থেকে জননী ক্লিনিকের পরিচালককেও গ্রেপ্তার করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত ১৪ জুন বৃহস্পতিবার বিকালে রিমার বাচ্চা প্রসব বেদনা উঠলে তাকে জননী ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয় এবং রাতে কোন ডাক্তার না থাকায় ওই ক্লিনিকের পরিচালক নাজমুল হক নিজে জরুরিভিত্তিতে অস্ত্রোপচার করে। অস্ত্রোপচারের পরপরই রোগীর অবস্থা সংকটাপূর্ণ হওয়ায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথেই মারা যায় রিমা।

(ঢাকাটাইমস/১৯জুন/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :