ইন্টারনেটে ভিডিও ছাড়ার ভয় দেখিয়ে গৃহবধূকে এক মাস ‘ধর্ষণ’

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২০ জুন ২০১৯, ২১:২০
ফাইল ছবি

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে এক গৃহবধূকে জিম্মি করে পালাক্রমে ধর্ষণ এবং ধর্ষণের ভিডিও মোবাইলে ধারণ করার ঘটনা ঘটেছে। ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ ও তার ছেলেকে হত্যার ভয় দেখিয়ে দীর্ঘ এক মাস ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে দুই বন্ধু।

এ ঘটনায় গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে তাদের আসামি করে মামলা করলে পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করে বৃহস্পতিবার জেলহাজতে পাঠিয়েছে।

গ্রেপ্তার সাদ্দাম হোসেন বালিয়াডাঙ্গী  উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়নের দক্ষিণ মেরধাপাড়া গ্রামের তারাব উদ্দীনের ছেলে।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার রত্নাই মাহাতবস্তি গ্রামের নুসরাত আলীর স্ত্রী গত ৭ মে বাড়ির পাশে ভুট্টা ক্ষেতের আইলে ছাগলের জন্য ঘাস কাটতে যায়। ওই সময়  সাদ্দাম হোসেন ও দুলাল নামে দুই বন্ধু অকস্মাৎ ওই গৃহবধূকে পেছন থেকে জাপটে ধরে এবং জিম্মি করে জনৈক দর্শন আলীর ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে দুই বন্ধু পালাক্রমে ধর্ষণ করে। শুধু তাই নয়, ধর্ষণের ভিডিও নিজেদের মোবাইল ফোনে ধারণ করে রাখে।

পরে ওই ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে ওই দুই বন্ধু বিভিন্ন সময়ে দীর্ঘ একমাস ধরে ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে আসছিল। আসামিদের হুমকি এবং লোক লজ্জার ভয়ে আসামিদের অত্যাচার মুখ বুঝে সহ্য করে আসছিল।

এক মাসের মাথায় দুই বন্ধুর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে গৃহবধূ তাদের কুপ্রস্তাবে সাড়া না দিলে ধর্ষণের ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপলোড করে তারা। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে ১৮ জুন বালিয়াডাঙ্গী থানায় একটি মামলা করলে পুলিশ এক বন্ধুকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।

গৃহবধূ জানান, বিষয়টি জানাজানি হলে সংসার ভেঙে যাবে এবং আমার একমাত্র ছেলের ক্ষতি হতে পারে ভেবে মুখ বুঝে অত্যাচার সহ্য করছিলাম। কিন্তু  ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দিলে আমার স্বামী আমার পাশে এসে দাঁড়ায়।

বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি মোসাব্বেরুল হক জানান, ধর্ষক সাদ্দাম হোসেনকে গ্রেপ্তার করে ঠাকুরগাঁও কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। অপর আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২০জুন/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :