জগন্নাথে নিজ বিভাগের শিক্ষক হলেন শাকিলা

ইসরাফিল হোসাইন, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৫ জুন ২০১৯, ১৭:১৬ | প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৯, ১৭:০১

পাবলিক বিশ্ব বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হিসেবে সবারই একটা স্বপ্ন থাকে শিক্ষাজীবন শেষ করে ভালো কিছু হওয়া বা করার। আর সেটা যদি নিজ বিভাগের শিক্ষক হয় তাহলেতো সোনায় সোহাগা। এমনি একজন শিক্ষার্থী শাকিলা আক্তার।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) লোক প্রশাসন বিভাগের প্রভাষক হিসেবে নিজের কর্মজীবন শুরু করেছেন শাকিলা আক্তার। তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের প্রথম ব্যাচের (২০১৩-২০১৪) শিক্ষার্থী ছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়োগ বোর্ডের সুপারিশ ও সিন্ডিকেটের ৮০তম সভায় শাকিলা আক্তারকে অস্থায়ীভাবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. মফিজুর রহমানের শিক্ষা ছুটিজনিত শূন্য পদের বিপরীতে ‘প্রভাষক’ হিসেবে শাকিলা আক্তার নিয়োগ লাভ করেন।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষ থেকে লোক প্রশাসন বিভাগের যাত্রা শুরু হয়। যাত্রার শুরুর সময় শিক্ষার্থীদের ক্লাস করার জন্য মাত্র একটি কক্ষ ছাড়া অন্য কোনো কক্ষ ছিল না। ছিল না কোনো রিডিং রুম বা কমন রুম। ছিল না কোনো লাইব্রেরি। প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থীরা একজন শিক্ষার্থী হিসেবে শিক্ষা অর্জনের ব্যাপারে নিজ বিভাগ থেকে তেমন কোনো সুযোগ-সুবিধা পায়নি। তবে বর্তমানে বিভাগের শিক্ষকদের প্রচেষ্টায় ক্লাস রুম বেড়েছে। শিক্ষার্থীদের জন্য হয়েছে কমনরুম, হয়েছে লাইব্রেরি। বর্তমান শিক্ষার্থীরা শিক্ষা অর্জনে নিজ বিভাগ থেকে অনেকটাই সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন।

শাকিলা আক্তার লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষিকা হওয়ায় বিভাগের সব শিক্ষক ও শিক্ষার্থী আনন্দিত। শিক্ষার্থীদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা বলেন, জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ে লোক প্রশাসন বিভাগটি একেবারেই নতুন একটি বিভাগ। মাত্র একটি ব্যাচের শিক্ষার্থীরা তাদের শিক্ষাজীবন শেষ করেছেন। শাকিলা আক্তারকে নিজ বিভাগের প্রভাষক হিসেবে নিয়োগ দেয়ায় আমাদের অনেক আত্মবিশ্বাস বেড়ে গেছে। পরবর্তী ব্যাচের শিক্ষার্থীরাও চাইবে শাকিলা আক্তারের মতো ভালো ফলাফল করে নিজ বিভাগের শিক্ষক হিসেবে অধিষ্ঠিত হয়ে বিভাগকে আরও উন্নত করতে।

বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আসমা বিনতে ইকবাল ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে যখন ভালো এবং যোগ্য শিক্ষার্থী থাকবে তখন আমরা কেন অন্য বিশ^বিদ্যালয় থেকে শিক্ষক নিয়োগ দেব? শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে আমরা সব সময়ই আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেব। শাকিলাকে নিজ বিভাগের শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দিতে পেরে আমাদের বিভাগের সব শিক্ষকই আনন্দিত।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের বিভাগটি একেবারে একটি নতুন বিভাগ। বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক পুরাতন বিভাগ রয়েছে যারা তাদের বিভাগের শিক্ষার্থীদের নিজ বিভাগে শিক্ষক নিয়োগ দিতে পারছে না। আমি আশা করবো আমাদের বিভাগের দেখাদেখি যেন অন্যান্য বিভাগেও তাদের বিভাগ থেকে যোগ্য শিক্ষার্থীদের শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেন।’

শাকিলা আক্তার ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই আমার স্বপ্ন   একজন শিক্ষক হওয়ার। নিজ বিভাগের শিক্ষক হতে পারবো তা কখনোই কল্পনা করিনি। আমাকে লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেয়ায় আমি সব শিক্ষকের কাছে কৃতজ্ঞ। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও শিক্ষকরা আমার ওপর যে দায়িত্ব অর্পণ করেছেন সে দায়িত্ব পালনের জন্য আমি আপ্রাণ চেষ্টা করবো।’

প্রসঙ্গত, ১৯৯৪ সালে ১২ আগস্ট নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থানার চনপাড়া গ্রামে শাকিলা আক্তার জন্মগ্রহণ করেন। শাকিলার বাবা শাকির আহমেদ ও মাতা শাহানাজ বেগম। ২০১০ সালে বাওয়ানী হাই স্কুল থেকে এসএসসি এবং ২০১২ সালে শামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। ২০১৭ সালে জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ থেকে অনার্স এবং ২০১৮ সালে মাস্টার্স পাস করেন। 

(ঢাকাটাইমস/২৫জুন/আইএইচ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :