মাধবপুরে শিশুর মরদেহ উদ্ধার, সৎ মাকে সন্দেহ

মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৫ জুন ২০১৯, ১৮:৫৩ | প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৯, ১৮:৫০

হবিগঞ্জের মাধবপুরে বায়েজিদ নামে চার বছরের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বায়েজিদের মায়ের অভিযোগ, তার সতিন পান্না বেগম বায়েজিদকে গলাটিপে হত্যা করেছে। 

মঙ্গলবার সকালে বায়েজিদের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। 

শিশু বায়েজিদ উপজেলার নয়াপাড়া ইউনিয়নের নারায়নপুর গ্রামের জুনাইদ মিয়ার ছেলে।

জানা গেছে, নারায়ণপুর গ্রামের জুনাইদ মিয়া ৫ বছর আগে শ্রীধরপুর গ্রামে নিলুফা নামে এক মেয়েকে বিয়ে করেন। তার ঘরে বায়েজিদ জন্ম গ্রহণ করেন। কিন্ত জুনাইদের পরিবারে সঙ্গে সম্পর্ক ভাল যাচ্ছিল না। পরে নিলুফার সঙ্গে জুনাইদের বিচ্ছেদ ঘটে। এরপর জুনাইদ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার  বিজেশ^র গ্রামে পান্না নামে আরেক নারীকে বিয়ে করেন। জুনাইদ ও নিলুফার মধ্যে সংসার ভেঙে গেলেও বায়েজিদ জুনাইদের দ্বিতীয় সংসারে বেড়ে উঠছিল।

বায়েজিদের মা নিলুফার অভিযোগ, পান্না বেগম তার ছেলেকে পরিকল্পীতভাবে খুন করেছে। ঘটনা ধামাচাপা দিতে প্রথমে অপপ্রচার করা হয় জিন তাকে মেরে ফেলেছে। পরে আবার বলা হয় বায়েজিদ ডায়রিয়ায় মারা গেছে। 

বায়েজিদের শরীরে আঘাতের অনেক চিহৃ রয়েছে। আমি এর সুষ্ঠ বিচার দাবি করি। 

মাধবপুর থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) লিটন ঘোষ জানান, বায়েজিদের ডান ও বাম গালে এবং গলায় কাল দাগ রয়েছে। চোখের ভিতরে রক্ত জমাটের চিহ্ন রয়েছে।

ঢাকাটাইমস/২৫জুন/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :