আর্থিক সংকটে স্বপ্ন পূরণে বাধা সৌরভের

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৭ জুন ২০১৯, ১৭:৩৫

কুড়িগ্রামের উলিপুরের হতদরিদ্র পরিবারের মেধাবী শিক্ষার্থী সৌরভ চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে ঢাকা নটরডেম কলেজে ভর্তি হয়েছেন। কিন্তু আর্থিক সংকটে তার শিক্ষাজীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

গ্রামের একটি বাজারে সেলুনে কাজ করে কোন রকমে সংসার চালালেও আজ যেন ছেলের ভবিষ্যৎ নিয়ে দুঃচিন্তায় পড়েছেন বাবা ধনিরাম চন্দ্র শর্মা। কোনভাবেই মেলাতে পারছেন না, কীভাবে ছেলের লেখাপড়ার খরচ যোগাবেন। ভাবছেন, ঢাকায় কোন সেলুনে কাজ করে ছেলের লেখাপড়া ও পরিবারের খরচ যোগাবেন। সে তো শুধু স্বপ্ন।

বৃহস্পতিবার সকালে জেলার উলিপুর পৌরসভার বকুলতলা বাজারের সেলুনে গিয়ে কথা হয় বাবা ধনিরাম চন্দ্র শর্মার সাথে। তিনি জানান, ছেলে সৌরভ চলতি এসএসসি পরীক্ষায় উলিপুর মহারাণী স্বর্ণময়ী স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে অংশ নিয়ে ৯৪৭ নম্বরসহ জিপিএ-৫ পেয়েছে। স্থানীয় কলেজে ভর্তি করাতে চাইলেও সৌরভ ঢাকার নটরডেম কলেজে ভর্তি পরীক্ষায় প্রতিযোগিতা করে ভর্তির সুযোগ পায়। ধার-দেনা করে ভর্তি করা হয়। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে আর্থিক সংকটের কারণে তার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ থমকে যাবে।

দুই সন্তানের মধ্যে সৌরভ কুমার শর্মা পিএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পেয়েছিল। জেএসসি পরীক্ষাও জিপিএ-৫ পাওয়ার কৃতিত্ব অর্জন করে। ছোট ছেলে সৌম্য কুমার শর্মার বয়স সাড়ে চার বছর। মা শ্যমলী রানী শর্মা একজন গৃহিণী।

উলিপুর পৌরসভার নারিকেলবাড়ী গ্রামের ধনিরাম চন্দ্র শর্মা পারিবারিক পেশা হিসেবে উলিপুর-নাজিমখাঁন সড়কের বকুলতলা বাজারে ছোট বেলা থেকেই সেলুন দিয়ে নর-সুন্দরের কাজ শুরু করেন। বসতভিটাসহ ৫০ শতক আবাদি জমিই তার সম্বল।

সৌরভ ভবিষ্যতে চিকিৎসক হয়ে সাধারণ মানুষের সেবা করতে চায়। এ অবস্থায় সৌরভের স্বপ্ন পূরণে সবার সহযোগিতা চেয়েছেন তার বাবা।

(ঢাকাটাইমস/২৭জুন/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :