প্রতারণার শিকার প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী

নজরুল ইসলাম, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৯ জুলাই ২০১৯, ১৮:১১ | প্রকাশিত : ১৯ জুলাই ২০১৯, ১৮:০৯

ব্যারিস্টার বিল্পব বড়ুয়া। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক। মাস চারেক ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহকারী। বেশ কিছু ঘটনায় তিনি শঙ্কিত। তার নাম ব্যবহার করে জালিয়াতির বেশ কিছু তথ্য পেয়েছেন।

বুধবার রাজধানীর শেরে-ই বাংলা নগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও করেছেন বিপ্লব। জানান, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার পর থেকে তিনি তার সিল বা প্যাড ব্যবহার করে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের কাছে কোনো চিঠি, সুপারিশ বা নির্দেশ দেননি। অথচ তার নামে চিঠিপত্র যাচ্ছে বলে তথ্য পেয়েছেন।

এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেছেন প্রধানমন্ত্রীর এই বিশেষ সহকারী। তবে কারা কারা কোন কোন প্রতিষ্ঠানে তার নাম ব্যবহার করে চিঠি দিয়েছন, সেই বিষয়টি এখনই প্রকাশ করতে চাইছেন না। বলেছেন, এটা পুলিশ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবে।

বিপ্লব বড়–য়া ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘নিয়োগ পাওয়ার পর থেকে একটি জালিয়াতি চক্র আমার নাম ব্যবহার করে এ ধরনের অনৈতিক কাজ করে যাচ্ছে। আমি থানায় ডায়েরি করেছি। এখন পুলিশের কাজ, তারা এটার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।’

কারা এ ধরনের কাজ করতে পারে বা কী উদ্দেশ্যে এই প্রতারণা করা হচ্ছে- এমন প্রশ্নে বিপ্লব বলেন, ‘কারা করছে সেটা শনাক্ত পুলিশ করবে। তবে আমার রাজনৈতিক সততা, ব্যক্তি সততা নষ্ট করার জন্য একদল মতলববাজ এমন কাজ করছে।’

এর আগেও নানা সময় বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নাম ব্যবহার করে প্রতারণার ঘটনা ঘটেছে। খোদ প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের প্যাড ব্যবহার করে নানা জালিয়াতি হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী পরিচয়ে ভুয়া পরিচয়পত্র বানিয়ে প্রতারণার ঘটনা ঘটেছে। বেশ কিছু ঘটনায় প্রতারকতা ধরা পড়েছে। নেয়া হয়েছে আইনি ব্যবস্থা।  

গত ৪ মার্চ বিল্পব বড়ুয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহকারী হিসেবে নিয়োগ পান। ২০১৬ সালে আওয়ামী লীগের ২০ তম জাতীয় সম্মেলনের পর তাকে দলের উপ-দপ্তর সম্পাদক করা হয়।

(ঢাকাটাইমস/১৯জুলাই/এনআই/ডব্লিউবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত