মিন্নির মামলার শুনানি ঢাকায় হোক

এম এ সামাদ
 | প্রকাশিত : ১৯ জুলাই ২০১৯, ১৮:১৪

প্রকাশ্য দিবালোকে আগুনে পুড়িয়ে নুসরাতকে বর্বরোচিত ভাবে হত্যা করলো যারা তারা উকিল পায়। চোর-ডাকাত, লুটেরা, খুনি, ধর্ষক সবাই এদেশে উকিল পায় এবং আমি মনে করি উকিল পাওয়া বা আইনি সহায়তা পাওয়ার অধিকার ও তাদের আছে। কিন্তু মিন্নির জন্য একজন উকিল ও দাঁড়াতে সাহস পায়নি।

আমি কোন উকিলকে দোষারোপ করব না, আমি বলতে চাচ্ছি যে বা যাহারা এই উকিলদের দাঁড়াতে দেয়নি বা যাদের ভয়ে উকিল সাহেবরা দাঁড়াননি তারা কত ভয়ংকর ক্ষমতার অধিকারী শুধু উকিল নয়, তাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে বরগুনায় সমুদ্রের ঢেউ ও নাকি নড়াচড়া করে না। এই ঘটনায় বুঝা যায়, সেখানে আইনের শাসনের কোন বালাই নেই। সেখানে চলছে ‘এক ব্যক্তির শাসন’।

তারা নয়ন বন্ডদের তৈরি করে প্রয়োজনে বলির পাঠাও বানায়, এই নয়ন বন্ডরা নিজে নিজে সৃষ্টি হয় না। এদের সৃষ্টি করা হয়। এদের ভরণ-পোষণ করতে হয়। এদের পৃষ্ঠপোষকতা ও লাগে। বরগুনায় এমন নয়ন বন্ডদের গডফাদার কারা?

ম্যাজিস্ট্রেট হিসাবে পারতপক্ষে কোন নারীকে কখনও রিমান্ডে দেবে না। সে যদি তরুণী হয়ে থাকে, কখনওই নয়। কারণ, তাকে অপব্যবহার করার ঝুঁকি, বাস্তবসম্মত আশঙ্কাও থাকে। কাজেই আমরা জেনেছি, মান্যবর ম্যাজিস্ট্রেটদের নাকি এমন নির্দেশনাও দেওয়া হয়। কিন্তু বরগুনায় আমরা দেখছি কোন নির্দেশনায় কাজ হয় না, কারো ইচ্ছায় সব হচ্ছে।

দেশের আইনের শাসনের ভয়ানক বিপর্যয়! বরগুনার ঘটনায় প্রতীয়মান হয় সারা দেশেই একই রকম অবস্থা। দেশে এখন আইনের শাসন অনুপস্থিত।

বরগুনায় মিন্নিকে রিমান্ডে দেয়া হল, যখন তার পক্ষে একজনও আইনজীবী দাঁড়ালেন না। রিমান্ডে দেয়া হলো, তাও আবার পাঁচ দিনের! আগের দিন যে মিন্নিকে ১৩ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হলো, তাকে তো জেল গেটে জিজ্ঞাসাবাদ করা যেত, একজন তরুণীকে রিমান্ডে রাখার জন্য ব্যবস্থা আছে?

মিন্নিকে কি এসপি মারুফ হোসেনের ফোর্স ক্রসফায়ারে ফেলবে? আজকের খবরে দেখছি, এক ‘মাদক ব্যবসায়ী’ নারীকে হত্যা করা হয়েছে, তথাকথিত অভ্যন্তরীণ কোন্দলে।

বরগুনার এসপি মারুফ হোসেনের আমলেই তো বরগুনার সেই ‘০০৭ বন্ড গ্রুপ’ এর সৃষ্টি এবং প্রসার। এদের ধরার এবং আইনের হাতে তুলে দেয়ার জন্য এই এসপি কী করেছেন? বরগুনায় তার চরম ব্যর্থতার পর তার এখন প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে ওঠার আরও বেশি আশঙ্কা এই মামলা ঢাকায় নিয়ে আসার দাবী করছি।

ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু, সাবেক এমপি দেলোয়ার হোসেনের সাম্রাজ্য ন্যায় বিচার বরগুনাতে সম্ভব নয়।

রিমান্ডে নেয়া দরকার ধীরেন্দ্র শম্ভুর সন্ত্রাসী ছেলে সুনাম দেবনাথকে, মিন্নিকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেয়া ও তার পক্ষে কোন উকিল না পাওয়ার ঘটনাকে অস্বাভাবিক বলে মনে করছে দেশবাসী।  আমরা ন্যায় বিচারের স্বার্থে এই মামলা ঢাকায় নিয়ে আসার দাবি করছি।

লেখক: সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদী)  

সংবাদটি শেয়ার করুন

মতামত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত