রাবিতে বেপরোয়া ও বহিরাগত যানে দুর্ঘটনার শঙ্কা

সালমান শাকিল, রাবি
 | প্রকাশিত : ২০ জুলাই ২০১৯, ০৮:২৮

ক্যাম্পাস অভ্যন্তরে বারবার অভিযান চারিয়েও বেপরোয়া ও বহিরাগত যানবাহন নিয়ন্ত্রণে আনতে পারেনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। দিন দিন ক্যাম্পাসে আতঙ্কের কারণ হয়ে উঠছে যানবাহনগুলো। শিগগির বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরে বেপরোয়া যান চলাচলের নিয়ন্ত্রণ চান শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বলছে, দ্রুতগতিতে চলা যানবাহন নিয়ন্ত্রণ এবং দুর্ঘটনা রোধে বিশেষ নজরদারি করা হচ্ছে।

ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি  বিভাগের তৃতীয়  বর্ষের শিক্ষার্থী আবু সাঈদ বলেন, ‘আমরা কাম্পাসে যখন রাস্তায় চলাচল করি বেপরোয়া গাড়ি চালানোর ফলে যেকোনো সময় ঘটে যেতে পারে মারাত্মক দুর্ঘটনা।’ কাম্পাসে এ ধরনের বেপরোয়া গাড়ি চালকদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির দাবি জানান তিনি।

ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের  শিক্ষার্থী রনি আয়োন বলেন, ‘সড়ক দুর্ঘটনা আমাদের দেশে একটা সামাজিক ব্যাধি হয়ে দাঁড়িয়েছে। ক্যাম্পাসে বিশেষ করে মেইন গেট ও কাজলা গেটে চলাচলের ঝুঁকি থাকে বেশি। পারাপারের সময় ঘটে যেতে পারে দুর্ঘটনা। আজই মেইন গেইটে ঢোকার সময় অ্যাক্সিডেন্টে পড়তে যাচ্ছিলাম।’

রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী রিমন আহমেদ বলেন, ‘কাম্পাসে অধিকাংশ মোটরসাইকেল চালক বহিরাগত। তারা যেভাবে গাড়ি চালাচ্ছে যেকোনো সময় ঘটে যেতে পারে মারাত্মক দুর্ঘটনা। এছাড়াও বিভিন্ন হলে থাকা ছাত্রদের বেপরোয়াভাবে মোটরসাইকেল চালাতে দেখা যায়।’
আরেক শিক্ষার্থী আহসান হাবীব বলেন, ‘কাম্পাসে মোটরসাইকেলগুলো চলাচল করতে দেখা যাচ্ছে খুুবই দ্রুতগতিতে। রাস্তায় ভিড় থাকলেও কোনো তোয়াক্কা করছে না চালকেরা। কাম্পাসের অধিকাংশ মোটরসাইকেল চালক বহিরাগত।’

সমাজকর্ম বিভাগের শিক্ষার্থী সায়েল আলী বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে চলাচলের জন্য যাতায়াত ব্যবস্থা নিরাপদ করা জরুরি। যেকোনো সময় ঘটে যাওয়া দুর্ঘটনায কেড়ে নিতে পারে একজন শিক্ষার্থীর প্রাণ। কাম্পাসে নির্ভয়ে  চলাচলের জন্য নীতিমালা করা দরকার। নীতিমালায় যানচলাচলের নির্দিষ্ট গতিসীমা বেঁধে দিতে হবে। এর বেশি গতিতে কোনো যানবাহন চলাচল করতে পারবে না।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে জানতে চাইলে প্রক্টর অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘বেপরোয়া যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা হচ্ছে। দুই একদিনের মধ্যে প্রক্টরিয়াল বডি আবারও বসবো। সমস্যা সমাধানে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

(ঢাকাটাইমস/২০জুলাই/জেবি)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :