প্রিয়ার বক্তব্য অশুভ শক্তিকে উস্কাবে: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২০ জুলাই ২০১৯, ১৫:৪৮ | প্রকাশিত : ২০ জুলাই ২০১৯, ১৫:০৫

বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতন নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে প্রিয়া সাহা যে বক্তব্য দিয়েছেন তাতে অশুভ শক্তিকে আরও উৎসাহিত করবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, এই বক্তব্যে পুরোপুরি মিথ্যা। তাকে সত্যের লেশমাত্র নেই। এই বক্তব্য শুধু নিন্দনীয়ই নয়, তা সাম্প্রদায়িক শক্তিকে আরও উৎসাহিত করবে।

শনিবার আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর যৌথসভা শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের তিনি একথা জানান। ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ট্রাম্পের ওভাল অফিসে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে গিয়ে দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশ সম্পর্কে উদ্ভট অভিযোগ করেন প্রিয়া সাহা নামে একজন নারী। তার দাবি, বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘু তিন কোটি ৭০ লাখ মানুষকে গুম করা হয়েছে। এখানে বিশেষ করে হিন্দুরা অমানবিক পরিবেশে আছেন। ট্রাম্প যেন হস্তক্ষেপ করেন।

এই অনুষ্ঠানে প্রিয়া বলেন, ‘আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি। সেখানে ৩৭ মিলিয়ন হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ খ্রিস্টানকে গুম করা হয়েছে। এখনো সেখানে ১৮ মিলিয়ন সংখ্যালঘু জনগণ রয়েছে। দয়া করে আমাদের সাহায্য করুন। আমরা আমাদের দেশ ত্যাগ করতে চাই না। আমি আমার ঘর হারিয়েছি, আমার জমি নিয়ে নিয়েছে, আমার ঘরবাড়িতে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে কিন্তু সেসবের কোনো বিচার নেই।’

তার বক্তব্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে। অনেকে তাকে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার, প্রিয়া সাহার অভিযোগ সত্য নয় বলে গতকাল ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে বলেছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘বাংলাদেশের বিভিন্ন ধর্মীয় সম্প্রদায় একে-অপরকে শ্রদ্ধা করে।’

ওবায়দুল কাদেরের দাবি, ‘প্রিয়া সাহার বক্তব্যের সঙ্গে দেশে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কেউ একমত না। আমি ব্যক্তিগতভাবে রানা দাশগুপ্তের সঙ্গে কথা বলেছি। তারাও এ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা করেছেন। এমনকি মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলারও এ ধরনের বক্তব্যের কোনও ভিত্তি নেই বলে মন্তব্য করেছেন।’

‘তার বক্তব্য রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল। অবশ্যই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে, প্রক্রিয়া চলছে।’

এ সময় উপজেলা নির্বাচনে যারা বিদ্রোহ করেছেন তাদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। বলেন, ‘উপজেলা নির্বাচনে যারা বিদ্রোহ করেছেন, বিদ্রোহে মদত দিয়েছেন, তাদের ব্যাপারে আজকের বৈঠকে সুনির্দিষ্ট সিদ্ধান্ত হয়েছে। ২০০ অভিযোগ পেয়েছি। সেসব অভিযোগ খতিয়ে দেখার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের ২৭ তারিখ পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে। ২৮ জুলাই থেকে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হবে।’

সংবাদ সম্মেলনে বন্যাদুর্গত এলাকায় আওয়ামী লীগ ও সরকারের পক্ষ থেকে নেওয়া বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরেন সেতুমন্ত্রী।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, আহমদ হোসেন, মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সবুর, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।

ঢাকাটাইমস/২০এপ্রিল/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :