দেশে নৈরাজ্য চলছে: ফখরুল

চট্টগ্রাম ব্যুরো, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২০ জুলাই ২০১৯, ২৩:১০ | প্রকাশিত : ২০ জুলাই ২০১৯, ২২:৫৯
ছবি: সংগৃহীত

জনগণের কাছে সরকারের জবাবদিহি নেই মন্তব্য করে বিএনপির মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এ জন্য দেশের সব ক্ষেত্রে নৈরাজ্য চলছে।

শনিবার (২০ জুলাই) চট্টগ্রাম নগরীর কাজির দেউরি এলাকার নুর আহমদ সড়কে আয়োজিত দলের বিভাগীয় সমাবেশে এসব কথা বলেন তিনি।

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দেশের সব বিভাগীয় শহরে সমাবেশের ধারাবাহিকতায় এই আয়োজন হয়। চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিএনপি আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বেগম জিয়ার মুক্তি দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, আইনজীবীরা বলেছেন, তার বিরুদ্ধে যে মামলা হয়েছে তার কোনো মেরিট নেই। তাকে হয়রানি ও আটকে রাখতে সাজানো ৩৬টি মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে।

আটক খালেদা জিয়ার সঙ্গে অমানবিক আচরণ করছে সরকার-এমন অভিযোগ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘তিনি ঠিকভাবে হাঁটতে পারেন না, খেতে পারেন না। এই সরকার তার চিকিৎসার জন্য ন্যূনতম ব্যবস্থা নিচ্ছে না। তাকে অবিলম্বে মুক্তি দিয়ে সুচিকিৎসার দাবি করছি।’

মির্জা ফখরুল গণতন্ত্রের আন্দোলন-সংগ্রামে খালেদা জিযার ভূমিকা তুলে ধরেন সমাবেশে। বলেন, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে বেগম জিয়া দেশের পথে-প্রান্তরে ঘুরে বেড়িয়েছেন চারণকবির মতো। দীর্ঘ ৪০ বছর তিনি গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করে চলেছেন। ১৯৯০ সালে স্বৈরাচারকে পরাজিত করে জনগণের ভালোবাসা ও সমর্থন নিয়ে সরকার গঠন করেছিলেন। এক-এগারোর বেআইনি সরকার তাকে কারাগারে নিক্ষেপ করেছিল। পরে অনমনীয় মনোবলের কারণে তিনি আবার গণতন্ত্রে ফিরে এসেছিলেন।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আওয়ামী লীগ জনগণের ভোট চুরি করে ক্ষমতায় বসেছে। তাদের সঙ্গে জনগণের কোনো সম্পর্ক নেই। জনগণের কাছে কোনো জবাবদিহি নেই। আজকে যখন বন্যা হচ্ছে, তখন তাদের কাউকে জনগণের পাশে দেখা যাচ্ছে না।’

বর্তমান নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘সরকার হাজিদের তত্ত্বাবধানের জন্য একটি টিম পাঠাচ্ছে, ওই টিমের সদস্য হয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হজ করতে সৌদি আরব যাচ্ছেন। দেখেন, সাংবিধানিক পদগুলোর এখন কী অবস্থা! এটি কী ভয়ংকর! তিনি (নিবার্চন কমিশনার) হজ তত্ত্বাবধান করতে যাচ্ছেন; নির্বাচন তত্ত্বাবধান বাদ দিয়ে।’

‘আমি স্পষ্টভাবে বলতে চাই, এই নির্বাচন কমিশন দিয়ে অবাধ, নিরপেক্ষ, সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না। শিগগিরই এই নির্বাচন কমিশন বাতিল করে নিরপেক্ষ ব্যক্তিদের দিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে।’

দেশে এখন নৈরাজ্য চলছে বলে মন্তব্য করেন বিএনপির মহাসচিব। বলেন, ‘আদালতে ঢুকে হত্যা করা হয়েছে, দিনে-দুপুরে কুপিয়ে হত্যা করা হচ্ছে। আমাদের মা-বোন কেউ রেহাই পাচ্ছে না।’

‘ব্যাংকগুলো লুট করে শেষ করে দিয়েছে। একটা ব্যাংকও নেই, যেখানে সুষ্ঠু লেনদেন আছে। শেয়ার মার্কেটকে ধ্বংস করে দিয়েছে। গ্যাসের দাম বাড়িয়েছে, জ্বালানির দাম বাড়িয়েছে, প্রত্যেকটা জিনিসের দাম বাড়িয়েছে। বাজেট ঘোষণার পর সব ভোগ্যপণ্যের দাম বেড়েছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আজকে কোথাও কোনো জবাবদিহি নেই। জবাবদিহি না থাকায় এই নৈরাজ্য সৃষ্টি হয়েছে।’

সরকার পুলিশ প্রশাসন, প্রশাসন এবং বিচার বিভাগকে দলীয়করণ করেছে অভিযোগ করে ফখরুল বলেন, ‘এমনকি মিডিয়া, আমাদের সাংবাদিক ভাইদের মাঝে ঢুকে তাদের নিয়ন্ত্রণ করা শুরু করে দিয়েছে; যাতে খবর তাদের ইচ্ছেমতো প্রকাশিত হয়।’

সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘সরকার বিএনপিকে ভয় পায়। তাই আমাদের সমাবেশ করার অনুমতি দেওয়া হচ্ছিল না। শেষ মুহূর্তে গতকাল সন্ধ্যায় অনুমতি দিয়েছে সড়কের ওপর সমাবেশ করার।’

‘বিএনপি নেতাকর্মীরা জ্বলে-পুড়ে খাঁটি সোনায় পরিণত হয়েছে। যেখানেই সমাবেশ করার সুযোগ দেওয়া হোক না কেন, সেখানেই জনসমুদ্র হবে।’

বিএনপির জনসভা ঘিরে পুলিশ আজ সকালে নুর আহমদ সড়ক, কাজীর দেউড়ি মোড়, লাভ লেনসহ আশপাশের এলাকায় অবস্থান নেয়। বেলা দুটায় শুরু হয় জনসভা। দুপুর থেকে নগর ও বিভিন্ন জেলার নেতা-কর্মীরা জনসভায় যোগ দেন। পুলিশ জনসভাস্থলে চারদিকে অবস্থান নেয়। এতে আতঙ্ক থাকলেও সন্ধ্যা পৌনে সাতটায় নির্বিঘ্নে শেষ হয় সমাবেশ

চট্টগ্রাম বিভাগের বিভিন্ন জেলার সভাপতি ও সম্পাদক ছাড়াও কেন্দ্রীয় নেতারা বক্তব্য দেন সমাবেশে।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান; ভাইস-চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান, মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, আব্দুল আউয়াল মিন্টু, বরকত উল্যাহ বুলু, মোহাম্মদ শাহজাহান, গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরী; যুগ্ম-মহাসচিব মাহবুব উদ্দিন খোকন, খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভূঁইয়া, জয়নাল আবেদিন ফারুক, অধ্যাপক জয়নাল আবেদিন প্রমুখ।

(ঢাকাটাইমস/২১জুলাই/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :