ময়মনসিংহে গৃহবধূকে গলাকেটে হত্যার চেষ্টা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ জুলাই ২০১৯, ০৮:২৭

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে এক গৃহবধূকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলাকেটে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার দীঘা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত ওই গৃহবধূর নাম নিলুফা ইয়াছমিন (২৭)। তিনি ওই গ্রামের মৃত কাজল মিয়ার স্ত্রী।

গৃহবধূর পরিবার সূত্রে জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যায় নিলুফা রান্না ঘর থেকে বের হয়ে বসতঘরে প্রবেশের সময় দুজন লোক তার পেছন থেকে এসে তাকে ঝাপটে ধরে গলার উল্টো দিক দিয়ে জবাই করার চেষ্টা চালায়। কিন্তু নিলুফা যথেষ্ট শক্তিশালী হওয়ায় তাদের সাথে ধস্তাধস্তি হয়। এক পর্যায়ে নিলুফা মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। নিলুফার পা বসতঘরে টিনের সাথে ধাক্কা লাগায় বেশ জোরে শব্দ হয়। তা শুনে গৃহবধূর শাশুড়ি ঘর থেকে বের হয়ে দেখেন নিলুফা রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন। পরে প্রতিবেশীদের সহায়তায় নিলুফাকে উদ্ধার করে দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে তার গলায় ১৫টি সেলাই দিতে হয়েছে।

গৃহবধূর ভাগ্নে মাজহারুল হকের দাবি এটি ‘কল্লাকাটা’ লোকজনেরই কাজ।

খবর পেয়ে গফরগাঁও ওসি আবদুল আহাদ খান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ওসি আহাদ খান জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। তারপরেও ঘটনার রহস্যে উদঘাটনে তদন্ত চলছে। থানার সেকেন্ড অফিসার খায়রুল ইসলামকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২১জুলাই/জেবি)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :