উত্তরায় ড্যান্স একাডেমির আড়ালে গ্যাং, গ্রেপ্তার ১৪

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২১ জুলাই ২০১৯, ২২:৩৩ | প্রকাশিত : ২১ জুলাই ২০১৯, ২২:৩০

নাচের কোনো প্রশিক্ষণ নেই। নেই একাডেমিক কোনো জ্ঞান। খুলে বসেছে ড্যান্স একাডেমি। মূলত ‘ড্যান্স’-এর কথা বলে আকৃষ্ট করে গড়ে তোলা হয় ‘গ্যাং’। চলে নানা অপরাধমূলক কার্যকলাপ আর অন্য গ্যাংয়ের সঙ্গে রেষারেষি।

রাজধানীর উত্তরার এমনই এক গ্যাং কালচার গ্রুপের ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। তারা পিএসবি নামের একটি ড্যান্স একাডেমির সদস্য।

র‌্যাব জানায়, শনিবার রাতে রাজধানীর উত্তরা এলাকা থেকে ফাস্ট হিটার বস (এফএইচবি) নামের কিশোর গ্যাং গ্রুপের ১৪ জন সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারা হলো বিশু চন্দ্র শীল, নাঈম মিয়া, ইয়াসিন আরাফাত, আসিফ মাহমুদ, ফরহাদ হোসেন, আল আমিন হোসেন, বিজয়, শাওন হোসেন সিফাত, ইমামুল হাসান মুন্না, তানভীর হাওলাদার, আকাশ মিয়া, মেরাজুল ইসলাম জনি, হজরত আলী ও রাজিব। এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি এসবিবিএল অস্ত্র ও দুটি ধারালো ছোরা জব্দ করা হয়।

এই গ্রুপের প্রধান বিশু। নিজেকে সে ড্যান্স মাস্টার হিসেবে পরিচয় দিলেও তার নেই কোনো নাচের জ্ঞান। উঠতি বয়সী কিশোরদের ড্যান্স শেখানোর নামে ছাত্র, দিনমজুর, বাস ড্রাইভার, অটো ড্রাইভার-হেল্পার থেকে শুরু করে সব পেশার উঠতি বয়সরদের দলে ভেড়ায়।

উত্তরা, আব্দুল্লাহপুর, টঙ্গী, উত্তরখান, দক্ষিণখান  এলাকায় এ ধরনের কয়েকটি কিশোর গ্যাং গ্রুপের দৌরাত্ম্য দেখা যায়। এদের মূল কার্যক্রম হলো: এলাকার আধিপত্য বিস্তার, স্কুল-কলেজে র‌্যাগিং করা, ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করা, মাদক সেবন, ছিনতাই, উচ্চ শব্দ করে মটরসাইকেল চালিয়ে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করা, ছিনতাই, অশ্লীল ভিডিও শেয়ার করাসহ এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করা। এ ছাড়া বিভিন্ন অনুষ্ঠানের নামে উচ্চশব্দে গান বাজিয়ে এলাকায় পৈশাচিক পরিবেশ তৈরি করে তারা। কেউ তাদের বাধা দিতে গেলে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হতে হয়। এরা এলাকার নিরীহ ও মেধাবী যুবক, কিশোরদের চাপে রেখে দলে আসতে বাধ্য করে।

র‌্যাব-১ এর সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সালাউদ্দিন ঢাকাটাইমসকে বলেন, এরা এফএইচবি গ্যাং গ্রুপের সক্রিয় সদস্য। তারা গ্রুপে সদস্য বাড়ানোর কৌশল হিসেবে পিএসবি নামের একটি ড্যান্স একাডেমি পরিচালনা করে। এই ড্যান্স একাডেমিতে কম খরচে ড্যান্স শিখানো হয়। গ্রেপ্তার বিশু নিজেকে ডান্স মাস্টার হিসেবে পরিচয় দিলেও তার ড্যান্স বিষয়ে কোনো প্রাতিষ্ঠানিক জ্ঞান নেই। সে শুধু উঠতি বয়সের কিশোদের তাদের গ্রুপে আষ্টৃষ্ট করার জন্য এই ড্যান্স ক্লাব পরিচালনা করে। এরা গ্যাং কালচারের নামে এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের জন্য বিভিন্ন অপরাধমূলক কার্যক্রম চালায়।  

(ঢাকাটাইমস/২১জুলাই/এএ/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :