সঞ্চয়পত্রে পাঁচ লাখ টাকায় উৎসে কর ৫ শতাংশ

সঞ্চয়পত্রের বিকল্প বন্ড মার্কেট আসছে: অর্থমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৯ জুলাই ২০১৯, ১৭:০২
ফাইল ছবি

সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ অপব্যবহার হচ্ছে জানিয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, সঞ্চয়পত্রের বিকল্প হিসেবে বন্ড মার্কেট গড়ে তোলা হবে, যেখানে নির্দিষ্ট মুনাফায় ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীসহ সবাই বিনিয়োগ করতে পারবে।

আজ সোমবার সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন অর্থমন্ত্রী। তিনি আরও জানান, এবারের বাজেটে সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগে উৎসে কর ১০ শতাংশ থাকলেও পাঁচ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ উৎসে কর ৫ শতাংশ কাটা হবে। এ বিষয়ে শিগগির এসআরও জারি করবে এনবিআর।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘সঞ্চয়পত্রে করের বিষয়টি এবারের বাজেটে পাস হয়েছে। প্রথমে পেনশনারদের জন্য সঞ্চয়পত্রের বিষয়টি আসে। এরপর এটির বিস্তৃতি ঘটায় এ ক্ষেত্রে অপব্যবহার বেড়ে গেছে। ফলে সঞ্চয়পত্রের সুবিধা গরিব ও পেনশনারদের পরিবর্তে ধনীরা পাচ্ছে।’

সঞ্চয়পত্রে পেনশনারদের জন্য বাজেটের আগের সুবিধা বহাল থাকবে বলে জানান অর্থমন্ত্রী। আর ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের জন্য সব ক্ষেত্রে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগে মুনাফার ওপর উৎসে কর ৫ শতাংশ। এটির কার্যকারিতা ১ জুলাই থেকে ধরা হবে। ৫ লাখ টাকার বেশি বিনিয়োগে উৎসে কর হবে ১০ শতাংশ।

সঞ্চয়পত্রে উৎসে কর ৫ শতাংশের জন্য বিনিয়োগসীমা পাঁচ লাখ টাকার পরিমাণটা অনেক কম হয়ে যাচ্ছে কি না- এমন প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, ‘সঞ্চয়পত্রের বিকল্প হিসেবে আমরা বন্ড মার্কেট নিয়ে আসব। ইন্ডিয়াতে সঞ্চয়পত্রের চেয়ে বন্ড মার্কেটে বিনিয়োগ বেশি। বন্ড মার্কেট চালু করতে পারলে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীসহ সবাই এতে বিনিয়োগ করে একটা নির্দিষ্ট মুনাফা পাবে। এ ক্ষেত্রে কোনো অপব্যবহার হবে না।’

তাই মন্ত্রী বিনিয়োগের জন্য বন্ড মাকেটকে বেশি গুরুত্ব দিতে চান। বলেন,  ‘আমি চাই মানুষ বন্ড মার্কেটে বেশি বেশি বিনিয়োগ করুক। বন্ড মার্কেটের অর্থ বছরে হাজারবার লেনদেন হয়। এ ক্ষেত্রে অর্থনীতি আরও বড় হবে। কিন্তু সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগে টাকা এক জায়গায় থেকে যায়।’

‘এখন পেনশনাররা সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগের জন্য উন্মুখ হয়ে থাকেন। তবে একটা সময় আসবে তারা নিজেরাই অর্থ সঞ্চয়পত্রে রাখবে না। কারণ, তাদের অন্য জায়গায় বেটার অফার দেয়া হবে।’

সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগকে নিরুৎসাহিত করার পক্ষে মন্ত্রী। সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগে স্বচ্ছতা থাকে না বলেও জানান তিনি। তাই মানুষ সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করুক এটা তারা চান না। তিনি বলেন, ‘আমরা চাই মানুষ ব্যাংকে বিনিয়োগ করুক। যেখানে বিনিয়োগ করলে অর্থনীতি শক্তিশালী হবে, আমরা সেখানেই বিনিয়োগ নিয়ে যেতে চাই।’

সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগে স্বচ্ছতা আনতে ডাটাবেজ তৈরি করা হচ্ছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘ডাটাবেজ দেখে নিশ্চিত হব- কে কোথায় কত টাকা বিনিয়োগ করেছে। তারপর পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেব।’

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :