রাঙামাটিতে জনসংহতির ২ নেতাকে গুলি করে হত্যা

রাঙামাটি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১২ আগস্ট ২০১৯, ০৯:৫০ | প্রকাশিত : ১২ আগস্ট ২০১৯, ০৮:৫৭

রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) সহযোগী সংগঠন যুব সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক শতসিদ্ধি চাকমা (৩৫) ও বাঘাইছড়ি উপজেলা কমিটির দায়িত্বশীল নেতা এনো চাকমাকে (৩০) গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

রবিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে উপজেলা সদরের বাবুপাড়ায় কমিউনিটি সেন্টারের পাশে নিজ বাসায় ব্রাশফায়ারে তাদের হত্যা করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এম এ মনজুর।

স্থানীয়রা জানান, যে এলাকায় এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে, সেই বাবুপাড়া পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এমএনলারমা) শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত। দীর্ঘদিন ধরে সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতি ও প্রসীত খীসার নেতৃত্বাধীন ইউপিডিএফের সঙ্গে এই এলাকার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল ২০০৯ সালে গঠিত এই সংগঠনটির।

গত কয়েক বছর ধরেই পাহাড়ে এমন হত্যাকাণ্ড চলে আসছে। গত বছরের মার্চে ভোটের সময় প্রিজাইডিং কর্মকর্তাসহ সাত জনকে গুলি করে হত্যা করা হয়। তার পরের মাসেই নিহত উপজেলা চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমার শেষকৃত্যে যোগ দিতে ফেরার পথে ব্রাশ ফায়ারে অন্তত পাঁচজন নিহত হন। এছাড়াও একজন দুজন করে প্রায়ই গুলিতে মারা যান।

পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি জ্ঞান চাকমা নিহতদের ‘নিজেদের নেতা’ দাবি করে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনার জন্য সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতিকে দায়ী করেছেন। তবে অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করতে জনসংহতি সমিতির কোনো দায়িত্বশীল নেতাকে মুঠোফোনে পাওয়া যায়নি।

ঢাকাটাইমস/১২আগস্ট/ ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :