জুয়াড়িদের দেশে পরিণত করেছে সরকার: ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৬:৪৪ | প্রকাশিত : ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:৪০

ক্ষমতাসীনরা দেশকে ‘জুয়াড়িদের দেশে’ পরিণত করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এই সরকার দেশ চালাতে ব্যর্থ-এমন দাবি করে এই মুহূর্তে তাদের পদত্যাগও চেয়েছেন তিনি।

রবিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে বক্তব্য দিচ্ছিলেন মির্জা ফখরুল। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল এই মানববন্ধনের আয়োজন করে।

অনিয়ম ও দুর্নীতি রুখতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়ে সরকার জুয়ার আশ্রয় নিয়েছে বলে মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব। এই সংসদ বাতিল করে নতুন নির্বাচনেরও দাবি জানান তিনি।

ফখরুল বলেন, ‘দেশটা জুয়াড়িদের দেশ হয়ে গেছে। এ সরকারকে যদি আমি বলি জুয়াড়ি সরকার, আমার অপরাধ হতে পারে না। কারণ, সরকার সব দিক থেকে ব্যর্থ হয়ে এখন জুয়ার আশ্রয় নিয়েছে। তারা ভাবছে জুয়া খেলে কোনো রকমে টিকে থাকা যায় কি না! যাবে না, কারণ এটা হচ্ছে গণতন্ত্রকামী মানুষের দেশ।’

‘আওয়ামী লীগের ছোট নেতা, পাতি নেতাদের দাপটে দেশে থাকা যাচ্ছে না। সরকারি কর্মচারীদের যা হুকুম করে তাদের তাই করতে হয়। মাটি খুঁড়ে বেড়িয়ে আসছে সরকারের পাপের ইতিহাস। কেঁচো খুঁজতে গিয়ে সাপ বের হয়ে আসছে।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘দেশে বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড হচ্ছে। আমাদের নেতাকর্মীদের তুলে নিয়ে যাওয়া হয়, জিজ্ঞাসা করলে বলা হয় জানি না। নিখুঁতভাবে গুম হয়ে যায়। এতে বাদ যায়নি আমাদের এমপিও।’

গত এক বছরে বিদেশে ২৭ হাজার কোটি টাকা পাচার হয়ে গেছে দাবি করে ফখরুল বলেন, ‘ক্যাসিনোগুলোতে কাজ করে বিদেশিরা এবং তারাই দেশের টাকা বিদেশে পাচার করছেন।’

ফখরুল বলেন, ‘অনেকে দোষারোপ করেন পুলিশকে। পুলিশ কী করবে, উপর মহল থেকে যা হুকুম হয় পুলিশকে তা পালন করতে হয়।’

চলমান ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের প্রসঙ্গ তুলে ফখরুল বলেন, ‘যুবলীগ সভাপতি বলছেন আমাদের কেন ধরছেন, তাদের (প্রশাসন) ধরেন। আপনারাই তো দেশ চালাচ্ছেন। আপনাদের নির্দেশেই এসব অপকর্ম হচ্ছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এটা এখন সম্পূর্ণভাবে গেমলারদের হাতে পড়ে গেছে। গেমলিংয়ে চলে গেছে। আর চাঁদাবাজি। চিন্তা করতে পারেন, আওয়ামী লীগের ছোটনেতা, বড়নেতা, পাতিনেতা-তাদের দাপটে বাংলাদেশে আর কেউ থাকতে পারছে না।’

খালেদা জিয়ার অসুস্থতার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা একবারও বলিনি খালেদা জিয়াকে দয়া করে ছেড়ে দিন। দেশের একজন নাগরিক হিসেবে তার যেটা প্রাপ্য সে অধিকার থেকে তাকে বঞ্চিত করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘আমরা কোর্টে যাই জামিনের জন্য। বিচারপতি সব শুনে চলে যান। যখন ওপর থেকে নির্দেশ আসে তার পরে তিনি আদেশ দেন। এখন দেশে বিচার বিভাগের কোনো স্বাধীনতা নেই।’

মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাসের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদের পরিচালনায় মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন মহিলা দলের সাবেক সভাপতি নুরী আরা সাফা, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হেলেন জেরিন খান, নিলুফার ইয়াসমিনসহ কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগরের নেতারা।

(ঢাকাটাইমস/২২সেপ্টেম্বর/বিইউ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :