রাজাপুরে বাবুল হত্যায় বিচার দাবি

রাজাপুর (ঝালকাঠি) ঝালকাঠি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ১৮:৫৪

ঝালকাঠির রাজাপুরে বাবুল হত্যায় বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী। বুধবার বেলা ১১টায় উপজেলার বড়ইয়া ইউনিয়নের উত্তমপুর বাজারে শতাধিক মানুষ এ মানববন্ধনে অংশ নেন।

নিহত বাবুল হাওলাদার উপজেলার উত্তমপুর গ্রামের মৃত ইউসুফ আলী হাওলাদারের ছেলে।

মানববন্ধনে নিহতের মা মনোয়ারা বেগম, স্ত্রী তাসলিমা বেগম ও মেয়ে উর্মি বেগম বক্তব্য দেন। তারা বলেন, ‘১৮ অক্টোবর বিকালে বাবুল একই ইউনিয়নের পালট গ্রামে মামার বাড়ি যায়। এরপর রাতে বাড়িতে না ফেরায় বাবুলের মেয়ে উর্মি খুঁজতে বের হয়। এ সময় উর্মি জানতে পারে, স্থানীয় কিছু যুবক তার বাবাকে ধাওয়া করে পশ্চিম বড়ইয়ার দিকে নিয়ে গেছে। পরে রাত ৯টার দিকে পশ্চিম বড়ইয়া এলাকার একটি নালায় বাবুলের মৃতদেহ পাওয়া যায়।’

স্বজনদের দাবি, নিহত বাবুল দীর্ঘ ১৭ বছর প্রবাসে ছিলেন। তিনি স্থানীয় যুবকদের ভালোভাবে চেনেন না। ঘটনার দিন নদীতে ইলিশ ধরায় নিষেধাজ্ঞা ছিল। নিহত বাবুল একটি ব্যাগ নিয়ে পশ্চিম বড়ইয়া এলাকা থেকে আসার সময় ইলিশ নিয়ে যাচ্ছে সন্দেহে পশ্চিম বড়ইয়া গ্রামের কাইউম, হেলাল, ইলিয়াছসহ ৭-৮ জন যুবক বাবুলকে ধাওয়া দিয়ে মারধর করে। এ সময় বাবুলের কাছে থাকা টাকা ও ব্যাগ নিয়ে যায় যুবকরা। খবর পেয়ে বাবুলের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। পরে একটি অপমৃত্যু মামলা করা হয়।

নিহতের ভাই কবির হাওলাদার বলেন, ‘ঘটনার সাথে জড়িত যুবকরা বিষয়টিকে অপমৃত্যু বলে চালিয়ে দেয়। তবে ঘটনার পর ধীরে ধীরে বিষয়টি জানা যায়। এটি কোন অপমৃত্যু না, এটি হত্যাকাণ্ড। পরে বিষয়টি বুঝতে পেরে অপমৃত্যু মামলাটিকে হত্যা মামলায় পরিণত করে এর বিচারের দাবি জানালেও পুলিশ গুরুত্ব দেয়নি। ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে দোষী যুবকরা ও তাদের আত্মীয়-স্বজনরা উঠেপড়ে লেগেছে। এ হত্যার বিচার চাই।’

রাজাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদ হোসেন বলেন,  ‘এ ঘটনায় আমরা আগেই লাশের ময়নাতদন্ত করিয়েছি। এখন নিহতের স্বজনরা চাইলে মামলা করতে পারেন। মামলা হলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

(ঢাকাটাইমস/১৩নভেম্বর/প্রতিনিধি/এএইচ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :