সম্মেলন নিয়ে বরিশাল মহানগর আ.লীগে উৎসবের আমেজ

আরিফিন তুষার, বরিশাল ব্যুরো
| আপডেট : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৯:৫৩ | প্রকাশিত : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১:৪১

দীর্ঘ সাত বছর পর বরিশাল মুক্ত দিবসে অনুষ্ঠিত হবে বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। আর এ আয়োজন হবে মহানগর আওয়ামী লীগের ইতিহাসের সর্ববৃহৎ আয়োজন। তাই এ সম্মেলন ঘিরে এরই মধ্যে উৎসব মুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে নগরজুড়ে। নেতাকর্মীদের মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরেছে। নেতাদের বড় বড় ছবি সংবলিত বিলবোর্ড, ব্যানার-পোস্টারে ছেয়ে গেছে পুরো নগরী। পদপ্রত্যাশী নেতারা শেষ মুহূর্তের তদবিরে ব্যস্ত। সম্মেলনের মাধ্যমে মহানগর আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতৃত্বে¡ পরিবর্তন আসবে, নাকি পুরনোরাই পুনর্বহাল হবেন এটাই এখন আলোচনার মূল বিষয়। চলছে নানা গুঞ্জন। এ নিয়ে নেতাকর্মীরা টানটান উত্তেজনায়।

সম্মেলনকে ঘিরে আওয়ামী লীগ নেতাদের মিলনমেলায় রূপ নিতে যাচ্ছে মহানগর। কেননা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, উপদেষ্টা, প্রেসিডিয়াম সদস্যসহ হেবিওয়েট নেতারা অংশ নেবেন এ সম্মেলনে। আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বরিশাল বিভাগের প্রথম সারির সকল নেতাদের।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ‘সর্বশেষ ২০১২ সালে বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন হয়। ওই সম্মেলনে বিসিসি’র সাবেক মেয়র শওকত হোসেন হিরন ও আফজালুল করিম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। এদিকে শওকত হোসেন হিরনের মৃত্যুতে মহানগর আওয়ামী লীগের নতুন কমিটি হলেও এ ক্ষেত্রে সম্মেলন বা ভোটাভুটি হয়নি। সে হিসেবে টানা সাত বছর পরে বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন হতে যাচ্ছে।

আওয়ামী লীগের একাধিক সূত্র জানিয়েছে, ‘সাত বছর আগে নগরীর সদর রোডস্থ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জেলা ও মহানগর সম্মেলন একসঙ্গে হয়েছিলো। আর এবার সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানে। বঙ্গবন্ধু উদ্যানে বিশাল এলাকাজুড়ে চলছে প্যান্ডেল নির্মাণ কাজ। করা হচ্ছে বিশাল অস্থায়ী মঞ্চ। তাছাড়া সম্মেলনকে ঘিরে রহমতপুরে বরিশাল বিমানবন্দর থেকে বঙ্গবন্ধু উদ্যান পর্যন্ত সড়কের উপরে নির্মণ করা হয়েছে একের পর এক দৃষ্টিনন্দন তোড়ন। এরই মধ্যে সদর রোড, জিলা স্কুল মোড়সহ বিভিন্ন স্থানে দৃষ্টিনন্দন তোড়ন নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। করা হবে আলোকসজ্জা।

মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল এবং সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট একেএম জাহাঙ্গীর বলেন, ‘৮ ডিসেম্বর বরিশাল মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের মহান স্বাধীনতাযুদ্ধকালিন সময় পাকিস্তানি হানাদারমুক্ত হয়েছিলো বরিশাল। তাই মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনের জন্য এই দিনটিকেই বেছে নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি সম্মেলনকে স্মরণীয় করে তুলতে আওয়ামী লীগের হেভিওয়েট নেতাদের মিলন মেলা করার প্রস্তুতি চলছে। সম্মেলনের প্রধান আকর্ষণ অর্থাৎ প্রধান অতিথি থাকবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। আর উদ্বোধন করবেন সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা আলহাজ্ব আমির হোসেন আমু-এমপি। প্রধান বক্তা থাকবেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির প্রভাবশালী সদস্য আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ- এমপি।

বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ও সাবেক মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ-এমপি, মেজর (অব.) হাফিজ মল্লিক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক শাম্মি আহম্মেদ, সদস্য গোলাম কিবরিয়া চিনু, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী স.ম রেজাউল করিমসহ কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ’র অংশগ্রহণের কথা রয়েছে। এছাড়াও বরিশাল বিভাগের ৬ জেলার আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতা, মন্ত্রী এবং এমপিদের আমন্ত্রন জানানো হয়েছে মহানগর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে।

ঢাকাটাইমস/০৭ডিসেম্বর/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :