এশিয়া-প্যাসিফিক সম্মেলনে ১৪ সুপারিশ

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১:৩৮

‘দি এশিয়া প্যাসিফিক কনফারেন্স অন ফিন্যান্সিং ফর ইনক্লুসিভ অ্যান্ড সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট এক্সপ্লোরিং: এ নিউ ফিন্যান্সিয়াল ল্যান্ডস্কেপ ফর এশিয়া-প্যাসিফিক’ শীর্ষক সম্মেলনে ১৪টি সুপারিশ দেয়া হয়েছে। গত ১০ ডিসেম্বর শুরু হওয়া এ সম্মেলনে শেষ দিন ছিল বৃহস্পতিবার। 

সম্মেলনের শেষ দিন বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় বিভিন্ন বক্তারা ১৪টি সুপারিশ তুলে ধরেন। আইসিসি বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট মাহবুবুর রহমান সংবাদ সম্মেলনে জানান, বিভিন্ন প্যানেল আলোচকরা তাদের রিকমান্ডেশন তুলে ধরেন।

এর মধ্যে রয়েছে অর্থনৈতিক খাতগুলো নিয়ন্ত্রণ এবং সহজলভ্য করা; বেসরকারি খাতগুলোর নীতি সংস্কার, বিনিয়োগ বৃদ্ধি এবং তাদের সামর্থ্য বৃদ্ধি করা; দীর্ঘমেয়াদী কর্ম-পরিকল্পনা তৈরি করা; বাজারে প্রবেশের সহজলভ্যতা, আর্থিক এবং দক্ষতাসহ যেকোনো তথ্য পাওয়া সবচেয়ে বেশি জরুরি; নতুন অর্থনৈতিক মেকানিজম নিশ্চিত করা; দারিদ্র্য বিমোচন এবং জলবায়ু পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রতিষ্ঠানগুলোর সক্ষমতা বৃদ্ধি করা; টেকসই ব্যাংকিং খাতের জন্য তা ডিজিটাইলেজশন করা; আর্থিক অন্তর্ভুক্তি’র জন্য আরও বেশি মাইক্রো-ক্রেডিট মেকানিজম প্রতিষ্ঠা করা; কার্যকরী বন্ড মার্কেটিং ব্যবস্থা বাস্তবায়ন; এফডিআই এর প্রতি আকর্ষণ বৃদ্ধির জন্য তথ্যের সহজলভ্যতা এবং স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে; আর্থিক খাত নিশ্চিতের জন্য যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং লজিস্টিক সেবা উন্নত করা; ফিনটেক প্রযুক্তির ওপর বেশি জোর দেয়া প্রয়োজন; এমএসএমই সেবার ব্যাপক প্রসারের জন্য নারীর ক্ষমতায়ন প্রয়োজন; পাবলিক-প্রাইভেট সম্পর্ক উন্নয়ন করতে হবে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় সম্মেলনটির আয়োজকদের মধ্যে আইসিসি বাংলাদেশ ছাড়াও রয়েছে জাতিসংঘের ইকোনমিক অ্যান্ড সোস্যাল কমিশন ফর এশিয়া অ্যান্ড দ্য প্যাসিফিক (ইউএনএসকাপ), এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের ট্রেড ফিন্যান্স প্রোগ্রাম (টিএফপি) এবং লন্ডন ইনস্টিটিউট অব ব্যাংকিং অ্যান্ড ফিন্যান্স।

সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে আইসিসিবির সভাপতি মাহবুবুর রহমান বলেন, ২০৩০ সালের মধ্যে এসডিজি বাস্তবায়নে পর্যাপ্ত অর্থায়নের জোগান অন্যতম একটি প্রধান চ্যালেঞ্জ। এসডিজি বাস্তবায়নে অর্থায়ন জোগানের ক্ষেত্রে উন্নয়ন ব্যাংকগুলোর সহায়তার পাশাপাশি সরকারি-বেসরকারি খাতের সমন্বয় প্রয়োজন। প্রাইভের কম্পানিতো আর ইচ্ছে করে সরকারকে গিয়ে টাকা দেবে না। সরকারকে প্রাইভেট পাললিক পার্টনারসিপের মাধ্যমে এ বিষয়ে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলে ইউএনএসকাপের হিসাব মোতাবেক প্রতি বছর টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে অতিরিক্ত ১ দশমিক ৫ ট্রিলিয়ন ডলারের প্রয়োজন।

এক প্রশ্নের জাবাবে মাহবুবুর রহমান বলেন, পরিবেশের বিষয়ও আলোচনা হয়েছে। পরিবেশ দূষণমুক্ত রাখতে হবে। এ বিষয়ে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে।

আন্তর্জাতিক সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল চেম্বার অব কমার্সের (আইসিসি) শতবর্ষ ও আইসিসি বাংলাদেশের (আইসিসিবি) ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে এ সম্মেলন হয়। রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে অনুষ্ঠিতব্য সম্মেলনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের চার শতাধিক প্রতিনিধি এসেছে বলে আয়োজকরা জানান।

আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের অতিরিক্ত সচিব অরিজিৎ চৌধুরী  সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/১২ডিসেম্বর/জেআর/আরআর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :